advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিচার বিভাগ এখন সম্পূর্ণ স্বাধীন

নিজস্ব প্রতিবেদক
৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ২৩:৩৯
advertisement

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চুরি করার কারণে প্রথমে বিচারিক আদালতে এবং পরে উচ্চ আদালতে দ-িত হয়েছেন। আবার জিয়া অর্ফানেজ ট্রাস্টের টাকা আত্মসাৎ করায় তিনি দ-িত হয়েছেন। এখানে সরকারের প্রতিহিংসা বা হস্তক্ষেপের প্রশ্নই ওঠে না। তার জামিনের বিষয়টিও আদালতের এখতিয়ারে।

তিনি বলেন, বিএনপি আমলে আদালতকে যেভাবে নিজেদের পকেটে রাখা হতো সেই অবস্থা এখন আর নেই। বিচার বিভাগ এখন সম্পূর্ণ স্বাধীন।

গতকাল মঙ্গলবার ঢাকায় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে জিপি (সরকারি কৌশুলী) এবং পিপিদের (পাবলিক প্রসিকিউটর) জন্য আয়োজিত ২১তম বিশেষ প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল আইন সংশোধনের বিষয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে এই আইন সংশোধনের জন্য উত্থাপন করা হবে। এর আগে অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, অ্যাকসেস টু জাস্টিসকে বিস্তৃত করার ক্ষেত্রে জিপি-পিপিদের সেবার মানসিকতা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে। মামলা দ্রুত নিস্পত্তি করতে অবশ্যই আদালতের সময় ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সব নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো ঢিলেঢালা বা গড়িমসি মনোভাব কাম্য নয়।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় আইন সচিব মো. গোলাম সাওয়ার বলেন, বিচার বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ স্টেক হোল্ডার হিসেবে দেওয়ানি ও ফৌজদারি সব বিষয়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় জিপি-পিপিদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ন্যায়বিচার শুধু করলেই হবে না, সেটি অবশ্যই দৃশ্যমান হতে হবে। অনুষ্ঠানে বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মূসা খালেদ সভাপতিত্ব করেন।

advertisement