advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইতালিতে শিশু নির্যাতন, বাংলাদেশি ইমাম বহিষ্কার

ইসমাইল হোসেন স্বপন,ইতালি
৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ২০:৫৬ | আপডেট: ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ০১:০৭
ইতালিতে শিশু নির্যাতনের দায়ে বাংলাদেশি ইমাম বহিষ্কার। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

ইতালিতে শিশু নির্যাতনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বাংলাদেশি এক ইমামকে দেশটি থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। ওই ইমামের নাম জুনায়েদ আহমেদ (১৯)।

গত সোমবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়। ওই বাংলাদেশি ইমাম দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় পাদোভা শহরের একটি মসজিদে ইমামতি করতেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইমামতির পাশাপাশি ‘বাংলাদেশ ইসলামিক কালচারাল সেন্টার’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানে শিশুদের কোরআন শিক্ষা দিতেন জুনায়েদ। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিতে শিশুদের শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে চলতি বছরের অক্টোবর মাসে তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির পুলিশ।

এরপর আদালতের নির্দেশানুযায়ী দুই মাস ডিটেনশন সেন্টারে রেখে গত সোমবার আদালত তাকে ইতালি ত্যাগের নির্দেশ দেয় এবং সেইসঙ্গে আজীবনের জন্য দেশটিতে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। 

এ বিষয়ে রোম দূতাবাসের কাউন্সিলর এরফানুল হক বলেন, ‘যদি তার বৈধ পাসপোর্ট থাকে তাহলে পুলিশ দূতাবাসকে অবগত না করার সম্ভাবনা রয়েছে। আর পাসপোর্ট না থাকলে দেশে পাঠাতে অবশ্যই দূতাবাস থেকে টিটি নিতে হবে।’

এ বিষয়ে ইতালিতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবাহান সিকদার বলেন, ‘এদেশে কেউ অপরাধ করলে এখানকার আইনানুযায়ী তার শাস্তি হয়। ইমাম সাহেবের অপরাধ এখানে সত্য বলে প্রমানিত হয়েছে। তাই এখানকার আইন মোতাবেক তার শাস্তি হবে। এখানে দূতাবাসের কিছু করার থাকে না। যদি তাকে সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার করা হতো তাহলে অবশ্যই আমরা তার পাশে দাঁড়াতাম।’

এছাড়া জঙ্গি তৎপরতার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মোহাম্মাদ বেনদাফি (২৪) নামের এক মরোক্কিয় নাগরিককেও বহিষ্কার করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির নিরাপত্তার কথা ভেবে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

advertisement