advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বৌভাত অনুষ্ঠানে রক্তদান কর্মসূচি নবদম্পতির

অনলাইন ডেস্ক
৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:২৬ | আপডেট: ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:২৬
বৌভাত অনুষ্ঠানে রক্তদান কর্মসূচি। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

বিয়ের পর পাত্রের বাড়িতে বৌভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও কনেপক্ষকে খাওয়াতে। খানাপিনা ও আনন্দ আয়োজনের ফাঁকে ব্যতিক্রমী আয়োজন করলেন এক নবদম্পতি। বৌভাতে রক্তদান কর্মসূচি করলেন তারা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার চুঁচুড়ার সিংহীবাগানে গতকাল রোববার বৌভাত অনুষ্ঠানে রক্তদান কর্মসূচি আয়োজন করেন নবদম্পতি দীপঙ্কর রায়-সুস্মিতা মান্না।

চুঁচুড়া সিংহীবাগান এলাকার বাসিন্দা দীপঙ্কর রায় বর্ধমানের কালনা কলেজের ইতিহাসের অধ্যাপক। তিনি এমফিল করার সময় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের ছাত্রী সুস্মিতা মান্নার সঙ্গে পরিচয় হয়। পড়াশুনার ফাঁকেই দুজন দুজনকে মন দেওয়া-নেওয়া করেন। আর গত শুক্রবার তারা সাতপাঁকে বাঁধা পড়েন।

নিজেদের বিবাহকে স্মরণীয় করে রাখতে অভিনব বুদ্ধি করেন তারা, আয়োজন করেন রক্তদান কর্মসূচির। বৌভাত অনুষ্ঠানে রক্তদান কর্মসূচি আয়োজন করে নিমন্ত্রিতদের কাছে প্রশংসিত হন তারা।

রোববার সকাল থেকেই নিমন্ত্রিতরা উৎসাহের সঙ্গে রক্তদান কর্মসূচিতে যোগ দেন। দীপঙ্কর-সুস্মিতাও রক্তদান করেন। আর এ কর্মসূচিতে যারা রক্তদান করেছেন দীপঙ্কর-সুস্মিতা তাদের হাতে একটি করে গাছের চারা উপহার হিসেবে দিয়েছেন।

দীপঙ্কর রায় বলেন, ‘অনুষ্ঠান বাড়িতে অনেক সময়ই আমরা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি অর্থ ব্যয় করে থাকি। যদি সমাজের কোনো কাজে লাগতে পারি তার জন্যই এই আয়োজন।’

সুস্মিতা মান্না বলেন, ‘বিয়ের অনুষ্ঠান নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনার সময় দীপঙ্কর তার ইচ্ছার কথা আমাকে জানিয়েছিল। আমি ওর এই সমাজের প্রতি কিছু কর্তব্য পালনের ইচ্ছাকে সম্মান জানিয়েছি।’

চুঁচুড়া সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. স্বপন কুমার দলুই এ কর্মকাণ্ড দেখে রীতিমতো আপ্লুত। তিনি বলেন, ‘বিয়েবাড়িতে রক্ত সংগ্রহ করতে আসা এক নতুন অনুভূতি। এভাবে সকলে এগিয়ে এলে অনেক সমস্যা সহজেই মিটে যাবে।’

advertisement