advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এক পেরেরার কাছেই হেরে গেল কুমিল্লা

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ২৩:১৭ | আপডেট: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ০১:৪১
ছবি : নজরুল মাসুদ
advertisement

ব্যাট হাতে ১৭ বলে ৪২ রান আর বল হাতে পাঁচ উইকেট! টিটোয়েন্টি ক্রিকেটে এমন অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্স যদি কেউ করেন তাহলে প্রতিপক্ষের জন্য জেতাটা বড়ই কঠিন।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ঢাকা প্লাটুন্সের হয়ে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে একাই পার্থক্য গড়ে দিলেন লংকান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা। তার অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের কারণে জয়ের সম্ভবানা জাগিয়েও ২০ রানে হেরে যায় কুমিল্লা।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ঢাকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠান কুমিল্লার অধিনায়ক ধাসুন শানাকা। ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন এনামুল বিজয়। মেহেদী হাসানও দ্রুত ফিরে গেলে বিপদে পড়ে ঢাকা। শেষ পর্যন্ত তামিম-পেরেরার দুর্দান্ত ইনিংসে ১৮০ রানের বড় লক্ষ্য দেয় ঢাকা।

টার্গেটে খেলতে নেমে রাজাপাকষের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে উড়ন্ত সূচনা করে কুমিল্লা। কিন্তু দলীয় ৮৬ রানে সৌম্য আউট হয়ে গেলে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় দলটি। এরপর থেকে নিয়মিত বিরতিতে কুমিল্লার উইকেট পড়তে থাকে। তবে অঙ্কন ২৭ বলে ৩৭ রান করে জয় এনে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু পারেননি। কুমিল্লার হয়ে সর্বোচ্চ ৪০ রান করেন ডেবিড মালান। রাজাপাক্ষে ২৯ ও সৌম্য ৩৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন।

ঢাকার হয়ে একাই পাঁচ উইকেট নেন থিসারা পেরেরা। দুটি উইকেট নেন ওহাব রিয়াজ। একটি করে উইকেট নেন মাশরাফি ও মেহেদী হাসান।

এদিকে দীর্ঘদিন পর চেনারূপে দেখা মেলে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবালের। চার-ছয়ের ফুলঝুরিতে ঢাকার হয়ে মাত্র ৫৩ বলে ৭৪ রান করেন তিনি। ৬টি চার ও ৪টি ছয়ের মারে তিনি এই রান করেন। অন্যদিকে লরি ইভান্স করেন ২৩ রান। যার ফলে কুমিল্লাকে ১৮১ রানের টার্গেট দিতে পারেন মাশরাফিরা।

কুমিল্লার হয়ে দুটি করে উইকেট নেন শানাকা ও সৌম্য সরকার। একটি করে উইকেট রনি ও মুজিব।

advertisement