advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মধ্যরাতে পিস্তল ঠেকিয়ে ভাবিকে ধর্ষণ!

অনলাইন ডেস্ক
১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ০০:৩৯ | আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৯:৫১
প্রতীকী ছবি
advertisement

রাতে মেয়েকে পাশে নিয়ে ঘুমাচ্ছিলেন পুষ্প (ছদ্মনাম)। পাশের ঘরে ছিলেন তার স্বামী। এরই মধ্যে ওই নারীর দেবর আবুল কালাম মোল্লা (২৮) তার ঘরে ঢোকেন। মধ্যরাতে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ভাবিকে ‘ধর্ষণ’ করেন তিনি।

সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ২৪ পরগনার মিনাখাঁ এলাকায়। ধর্ষণের শিকার নারী তার দেবরের বিরুদ্ধে বসিরহাট মহকুমা আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে আবুল কালাম মোল্লা পলাতক রয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, উত্তর ২৪ পরগনার এক নারীর স্বামী কাজের কারণে কলকাতায় থাকেন। প্রতি সপ্তাহের শেষ দিনে তিনি বাড়ি ফেরেন। গত বুধবারও তিনি বাড়ি ফেরেন। রাতে স্ত্রীর সঙ্গে কিছুটা সময় কাটিয়ে তিনি ঘুমাতে যান। ওই নারীও তার মেয়েকে নিয়ে নিজের ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন।

মধ্যরাতে তার দেবর আবুল কালাম মোল্লা বাড়ি ফেরেন। তার ভাবির ঘরে ঢুকে তার মাথায় পিস্তল ঠেকান। চিৎকার করলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করেন।

ভুক্তভোগীর গোঙানির শব্দ শুনতে পান তার স্বামী। স্ত্রীর ঘরে ঢুকে ভাইকে থামাতে চেষ্টা করেন। কিন্তু কালাম বড় ভাইকে মারধর করে।

উত্তর ২৪ পরগনা পুলিশ জানিয়েছে, আবুল কালাম তার এলাকায় প্রভাবশালী। কিন্তু গতকাল শুক্রবার দুপুরে বসিরহাট মহকুমা আদালতে গিয়ে দেবরের বিরেুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী ও তার স্বামী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ৷ তবে, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আবুল পলাতক রয়েছেন।

advertisement