advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের পর হত্যায় গ্রেপ্তার যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ১০:১০ | আপডেট: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৪:১৪
ছবি : সংগৃহীত
advertisement

ফরিদপুরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ইয়াসিন মোল্লা (২২) নামে এক যুবক বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। গতকাল রোববার দিবাগত রাত ২টার দিকে শহরের রথখোলা লঞ্চঘাট জোড়া ব্রিজের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ইয়াসিন মোল্লা শহরের ওয়ারলেসপাড়ার মনি মোল্লার ছেলে। তার বিরুদ্ধে তিনটি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুর কোতোয়ালী থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) বেলাল হোসাইন জানান, রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে ছবি সংগ্রহ করে ইয়াসিনকে চিহ্নিত করা হয়। এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় রোববার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে প্রতিবন্ধী ওই কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে। এ সময় হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি ও পোশাক লঞ্চঘাট এলাকায় মাটিতে পুতে রাখা হয়েছে বলে পুলিশকে জানায় ইয়াছিন।

পরে পুলিশ ইয়াছিনকে নিয়ে সেই আলামত উদ্ধারে গেলে সে পুলিশ সদস্যের অস্ত্র কেড়ে নিয়ে হামলা চালিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ধস্তাধস্তিতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়লে ইয়াছিন গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আহত দুই পুলিশ সদস্যকেও ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ১৪ বছরের প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে রাজেন্দ্র কলেজের মেলার মাঠ থেকে তুলে নিয়ে যায় ইয়াসিন নামে ওই যুবক। পরের দিন পাশের টেলিগ্রাম অফিসের পাশ থেকে কিশোরীর বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি হত্যা মামলা করেন তার বাবা।

advertisement