advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সিইসিকে ‘এক অদ্ভুত জীব’ বললেন মান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ জানুয়ারি ২০২০ ১৭:৫৫ | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০২০ ০১:২৫
জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদাকে ‘এক অদ্ভুত জীব’ হিসেবে অভিহিত করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। এ ছাড়া সিইসি রাজনৈতিক দলগুলোর কথায় কোনো গুরুত্ব দেন না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ মন্তব্য করেন মান্না।

সিইসিকে চোর-ডাকাত সম্বোধন করে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, ‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার এক অদ্ভুত জীব! তাকে আপনি যাই বলেন, উনি শুনবেন, শোনার পর তার নিজের কথাই বলবেন। উনি যে কিছু শুনেছেন এটা মনে হবে না। যেখানে নির্বাচন কমিশনার নিজেই চোর, নিজেই ডাকাত। তার আবার ইভিএম নিয়ে এত কথাবার্তা- এটা শুনে আমাদের লাভ নেই।’

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনেই ‘খেলা শেষ নয়’ বলে মন্তব্য করেন মান্না। তিনি বলেন, ‘ভোটে ‘দুই নাম্বারি’ হলে ৩০ জানুয়ারি থেকে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু করবে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলো। কোনো কারণে যদি কারও আঙুলের ছাপ না মিলে তাহলে প্রিজাইডিং অফিসার সেখানে ২৫ শতাংশ ভোট নিজে দিতে পারবেন। এর চাইতে ফোর-টুয়েন্টি আর কি হতে পারে?’

মানববন্ধনে জার্মানি, আয়ারল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডসে ইভিএমে ভোট নেওয়া বাতিলের উদাহরণ তুলে ধরেন মান্না। পাশের দেশ ভারতেও নির্বাচন কমিশন বিভিন্ন জনের মতামত নিয়ে ইভিএমের পরিবর্ধন-সংশোধন করেছে বলে জানান তিনি।

ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) সংক্রান্ত এক প্রশ্নে এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘এটা চালু করেছি যাতে দিনের ভোট রাতে না হয়।’ বিষয়টি নিয়ে মান্না বলেন, ‘তার মানে আগে যে ভোট হয়েছিল সেটা তিনি স্বীকার করেছেন। একটা মেশিন আমরা যেভাবেই কাজে লাগাতে চাই, সেভাবে কাজে লাগানো যায়। আমরা যদি মনে করি, ইভিএমের মধ্যে আমরা সেইরকম কমান্ড দেব, আপনি যেখানেই চাপ দেন নৌকা মার্কায় সিলটা যাবে। ভেতরের ঘটনা তো দেখতে পাচ্ছেন না। সুতরাং, এটা বাতিল করতে হবে।’

গণতন্ত্র ফোরাম আয়োজিত সিটি নির্বাচনে ইভিএম বাতিলের দাবিতে ওই মানববন্ধনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও আয়োজক সংগঠনের মোহাম্মদ ইব্রাহিম বক্তব্য দেন।

advertisement