advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শিরোপায় চোখ জামালের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৫ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০৪
advertisement

আজ শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের ষষ্ঠ আসর। টুর্নামেন্টে উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশ-ফিলিস্তিন মুখোমুখি হবে। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকাল ৫টায় ম্যাচটি শুরু হবে। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও আরটিভি ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জম্মশতবার্ষিকীতে দেশকে ট্রফি উপহার দিতে চান জামাল ভূঁইয়ারা। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিন। গত আসরে এ দলটির বিপক্ষে সেমিফাইনালে দেখা হয়েছিল লাল-সবুজের জার্সিধারীদের। কিন্তু তাদের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় বাংলাদেশ। এবারের আসরে প্রথম ম্যাচেই দলটির বিপক্ষে খেলবে স্বাগতিকরা। টুর্নামেন্টে জয় দিয়েই যাত্রা করতে চায় কোচ জেমি ডের শিষ্যরা।

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৭। ফিলিস্তিন রয়েছে ১০৬ নম্বরে। র‌্যাংকিংয়েই বোঝা যাচ্ছে দুদলের পার্থক্য। তবে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে জয় চায় লাল-সবুজের জার্সিধারীরা। বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেন, এটা বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর টুর্নামেন্ট। আমরা অবশ্যই ভালো খেলে দেশকে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব। অসুস্থতার কারণে বাংলাদেশ দলে নেই নাবীব নেওয়াজ জীবন। বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ জেমি ডে বলেন, ‘জীবনকে আমরা দলে ডাকতে পারিনি। তার অসুস্থতাই এই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দিয়েছে। সে থাকলে ভালো হতো।’ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াও বলেন, ‘জীবনকে আমরা দলে পাচ্ছি না। এ জন্য কিছুটা খারাপ লাগছে। তবে আমরা খেলার মধ্যেই রয়েছি। পাশাপাশি প্রস্তুতিও নিয়েছি যথেষ্ট। আশা করি ফিলিস্তিনের বিরুদ্ধে ভালো ম্যাচ খেলতে পারব।’

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের গত আসরে পূর্ণ জাতীয় শক্তির দল নিয়ে খেলেছিল ফিলিস্তিন। এবার দলটিতে পরিবর্তন এসেছে। তার পরও অনেক শক্তিশালী দলটি। তবে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে পূর্ণ পয়েন্ট পেতে চান বাংলাদেশ দলের কোচ জেমি ডে। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আমরা ভারতের বিপক্ষে যেমন খেলেছি এবং ওমানের বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে যা খেলেছিলাম, এ রকম খেলতে পারলে অবশ্যই পয়েন্ট পাওয়া সম্ভব। আর যদি ওমানের সঙ্গে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের মতো খেলি তাহলে তো কিছু করার থাকবে না।’ অনুশীলনে গোল স্কোরিং নিয়ে কাজ করেছেন জেমি ডে। তিনি বলেন, ক্লাব পর্যায়ে দেশি ফুটবলাররা স্ট্রাইকিংয়ে সুযোগ পেলে জাতীয় দলের জন্য ভালো। যেমন সাদ উদ্দিন যদি ক্লাব ফুটবলে স্ট্রাইকিংয়ে খেলত, তা হলে আমরা আরও একটু নির্ভার থাকতে পারতাম।’

এদিকে টুর্নামেন্টে জয় দিয়ে সূচনা করতে চাইবে ফিলিস্তিন। শিরোপা ধরে রাখার লক্ষ্য তাদের। দলটির কোচ মারকাম দাবুর বলেন, এক বছর আগে আমরা এখানে এসেছিলাম এবং শিরোপা জিতেছিলাম। ফের শিরোপা জিততেই এখানে এসেছি। এখানে আসার আগে আমরা মাত্র চার দিন অনুশীলন করেছি। দুই জামার্নিসহ বর্তমান সময়ের সেরা ফুটবলারদের নিয়ে আমরা বাংলাদেশে এসেছি। তবে এখানে সাত থেকে আটজন অলিম্পিক দলের ফুটবলার রয়েছে। এ ছাড়া ছয়জন রাশিয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে খেলা ফুটবলার আছে। বাকিরা নিয়মিত স্থানীয় লিগের ফুটবলার।’ প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ প্রসঙ্গে ফিলিস্তিন কোচ মারকাম বলেন, ‘গতবার আমরা সেমিফাইনালে বাংলাদেশের সঙ্গে খেলেছি। এবার খেলতে হচ্ছে একই গ্রুপে। বেশ কয়েকজন ভালো মানের ফুটবলার রয়েছে, বেশ ভালো একটি দল বাংলাদেশ। তবে আমাদের শক্ত প্রতিপক্ষ হতে পারে বুরুন্ডি।’ ফিলিস্তিন দলের অন্যতম ফুটবলার মোহাম্মদ জারইউস বলেন, ‘এটি (ফিলিস্তিন) নতুন দল। আর আমি এই দলে প্রথমবারের মতো সুযোগ পেয়েছি। বাংলাদেশে এটি আমার প্রথম সফর। টুনার্মেন্টের শিরোপা জিততে আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’ ধারণা করা হচ্ছে, বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের প্রথম ম্যাচটি দারুণ উপভোগ্য হবে বলেই প্রত্যাশা।

advertisement