advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

হিজাব নিষিদ্ধ করায় হিজাব পরেই অমুসলিমদের প্রতিবাদ

অনলাইন ডেস্ক
১৭ জানুয়ারি ২০২০ ০০:৫১ | আপডেট: ১৭ জানুয়ারি ২০২০ ০০:৫১
ছবি : সংগৃহীত
advertisement

সুইডেনে হিজাব ব্যবহার নিষিদ্ধ করায় হিজাব পরেই প্রতিবাদ জানিয়েছে দেশটির ছয় শিক্ষিকা। সুইডেনের ডানপন্থি রাজনৈতিক দল ‘সুইডেন ডেমোক্রেট’ এর প্রস্তাবনায় লিবারেল কনজারভেটিভ প্রধানরা এবং দক্ষিণ সুইডেনের স্কুরুপ পৌরসভা হিজাব নিষিদ্ধ করে আইন প্রবর্তণ করে।

ওই আইনে স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং কর্মচারীদের হিজাব পরিধান নিষিদ্ধ করা হয়। মস্কোভিত্তিক বার্তা সংস্থা স্পুটনিক নিউজের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

প্রতিবাদ করা ওই ছয় শিক্ষিকা জানান, মুসলিম শিক্ষার্থীদের প্রতি সমবেদনা জানাতেই তারা হিজাব ব্যবহার করেছেন।

এ ছাড়া হিজাববিরোধী এ আইনের বিরোধিতা করে স্কুরুপ টাউন হলের বাইরে প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় মুসলিম সংগঠনগুলো। এই আইনকে ‘বর্ণবাদী’ আখ্যা দিয়ে ‘মালমোস ইয়াং মুসলিম’ এর প্রধান তাসনিম রউফ বলেন, ‘এই আইনের মাধ্যমে মুসলিম নারীদের পোশাক নির্বাচন ও তাদের গণতান্ত্রিক অধিকারকে অস্বীকার করা হয়েছে।’

পৌরসভার সিদ্ধান্ত মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে প্রস্টামোসেসকোলনের প্রধান শিক্ষক মাতিয়াস বলেন, ‘আমি বা আমার সহকর্মীরা কেউ এটি প্রয়োগ করব না। আর উদ্ভূত পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার দায়িত্ব পৌরসভার।’

হিজাব পরে প্রতিবাদ জানানো অমুসলিম শিক্ষিকা মারিট বলেন, ‘আমাদেরকে হিজাব পরা দেখে শিক্ষার্থীরা খুবই উচ্ছ্বসিত হয়। তাদেরকে সমর্থন করতেই এটি করা হয়েছে।’

 

পিউ রিসার্চ সেন্টারের দেওয়া তথ্যমতে, বিগত কয়েক দশকে সুইডেনে মুসলমানের সংখ্যা বেড়েছে। ১৯৫০ সালে দেশটিতে মুসলমানের সংখ্যা ছিল মাত্র ৫০০। যা বর্তমানে আট লাখে উন্নীত হয়েছে। সুইডেনের জনসংখ্যার ৮.১ শতাংশ এখন মুসলিম।

advertisement
Evall
advertisement