advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মিয়ানমারে ঐতিহাসিক সফরে চীনা প্রেসিডেন্ট

অনলাইন ডেস্ক
১৮ জানুয়ারি ২০২০ ১৭:১৯ | আপডেট: ১৮ জানুয়ারি ২০২০ ১৭:১৯
মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে দেশটির সেনাদের নির্যাতন থেকে পালিয়ে বাঁচতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন আলোচনার মাঝে মিয়ানমার সফরে গেলেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি চিনপিং। রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে চীনের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বলে এ সফরে চিন্তা বাড়লো বাংলাদেশের।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমআল জাজিরা জানায়, গতকাল শুক্রবার চীনা প্রেসিডেন্ট শি চিনপিং দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে মিয়ানমার গেছেন। তার এ সফরের মাধ্যমে ১৯ বছর পর কোনো চীনা প্রেসিডেন্ট মিয়ানমার সফরে গেলেন।

শি চিনপিংয়ের এ সফরকে চীনের ‘ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড’ উদ্যোগ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে মনে করা হচ্ছে। তবে রোহিঙ্গা নিয়ে দু’দেশের আলোচনাও হতে পারে।

মিয়ানমারের বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী অং জেই জানিয়েছেন, চিনপিং মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি, প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট ও সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তাদের এই বৈঠকে চামসু বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগ ও রাখাইন রাজ্যে ১৩০ কোটি ডলার ব্যয়ে গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণসংক্রান্ত চুক্তি হওয়ার কথা রয়েছে। এছাড়া প্রায় হাজার কোটি ডলারের বিনিয়োগ চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে। আজ শনিবার মিয়ানমারের রাজধানীতে নেপিদোতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।  

২০১৭ সালে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনে ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। জাতিসংঘের তদন্তকারী কর্মকর্তারা জানান,সে সময় প্রায় ১০ হাজার রোহিঙ্গা সংখ্যালঘুকে হত্যা করেছ মিয়ানমার। রাখাইন রাজ্যে গণহত্যার অভিযোগ এনে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে মামলা দায়ের করেছে গাম্বিয়া। আগামী ২৩ জানুয়ারি এ মামলার প্রথম ধাপের রায় প্রকাশ হবে।

advertisement