advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এবার পাঞ্জাবে নাগরিকত্ব আইন বাতিলের প্রস্তাব পাস

আমাদের সময় ডেস্ক
১৯ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ জানুয়ারি ২০২০ ০০:২৬
advertisement

ভারতের বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বাতিলের প্রস্তাব পাস হয়েছে পাঞ্জাবের বিধানসভায়ও। কেরালা রাজ্যের পর দ্বিতীয় রাজ্য হিসেবে গত শুক্রবার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাঞ্জাবের কংগ্রেসশাসিত সরকার। এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

পাঞ্জাবের মন্ত্রী ব্রহ্ম মহিন্দ্রা বিধানসভায় বিষয়টি উত্থাপন করেন। সিএএ বাতিলের প্রস্তাবে তিনি বলেন, গত ডিসেম্বরে পার্লামেন্টে পাস হওয়া নতুন নাগরিকত্ব আইন পাঞ্জাবসহ দেশজুড়ে ক্ষোভ ও সামাজিক অস্থিরতার সৃষ্টি করেছে। এই আইন বৈষম্যমূলক।

প্রস্তাবে আরও বলা হয়, এটি স্পষ্ট যে সিএএ দেশের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তি, যা সংবিধানের প্রাথমিক বৈশিষ্ট্যের পরিপন্থী। ফলে কক্ষ থেকে সিএএ বাতিলের প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে ভারত সরকারকেÑ যাতে ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব প্রদানের মাধ্যমে কোনো বৈষম্যকে এড়ানো সম্ভব হয়; ভারতের সব ধর্মীয় সংগঠনের জন্য আইনের সাম্য নিশ্চিত করা যায়।

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) ও এর সম্ভাব্য প্রথম ধাপ এনপিআরের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে দেশের একশ্রেণির নাগরিককে বঞ্চিত করার জন্য বলেও প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পাস হওয়ার পর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে। এ আইনের

বিরোধিতা করে প্রথম কেরালা রাজ্য সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হয়। সেখানে এ আইনের বিষয়ে ৬০টি পিটিশন জমা পড়েছে।

উল্লেখ্য, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে আফগানিস্তান, পাকিস্তান, বাংলাদেশ থেকে ২০১৪ সালের আগে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। সমালোচকদের মতে, এই আইন বৈষম্যমূলক এবং সংবিধানে বর্ণিত দেশের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তির পরিপন্থী।

advertisement