advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মতিউর রহমানকে ৪ সপ্তাহের আগাম জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ জানুয়ারি ২০২০ ১২:৪৬ | আপডেট: ২০ জানুয়ারি ২০২০ ১৫:৫৭
প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান। ফাইল ছবি
advertisement

ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুল অ‌্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী নাইমুল আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের করা মামলায় চার সপ্তাহের আগাম জামিন পেয়েছেন প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান। একইসঙ্গে বাকি পাঁচজনকে পুলিশ প্রতিবেদন না দেওয়া পর্যন্ত গ্রেপ্তার বা হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ সোমবার দুপুরে হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ তাদের জামিন আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার এম আমির-উল-ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘প্রথম আলো সম্পাদককে চার সপ্তাহের আগাম জামিন দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া মামলার এজাহারে নাম না থাকায় বাকি পাঁচ আসামিকে পুলিশ রিপোর্ট দাখিল না করা পর্যন্ত গ্রেপ্তার ও হয়রানি না করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

গতকাল রোববার দুপুরে হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ থেকে জামিন আবেদনের জন্য অনুমতি নিয়ে আবেদন করেন মতিউর রহমানসহ ছয়জনের আইনজীবী। জামিন আবেদন করা বাকি পাঁচ জন হলেন পত্রিকাটির সহযোগী সম্পাদক আনিসুল হক, কিশোর আলোর জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক মহিতুল আলম, প্রথম আলোর হেড অব ইভেন্ট অ্যান্ড অ্যাকটিভেশন কবির বকুল, নির্বাহী শাহ পরাণ তুষার এবং নির্বাহী শুভাশীষ প্রামাণিক। এ সময় জামিন শুনানিরও আবেদন জানানো হয়। কিন্তু আদালত সোমবার শুনানির জন্য সময় নির্ধারণ করেন।

এর আগে নাইমুল আবরার নিহত হওয়ায় কিশোর আলো কর্তৃপক্ষের অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেছে মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল আলিম। পরে গত বৃহস্পতিবার ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়সারুল ইসলাম প্রতিবেদন আমলে নিয়ে প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, সাময়িকীটির সম্পাদক ও লেখক আনিসুল হকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

প্রতিবেদনে মতিউর রহমান ও আনিসুল হক ছাড়াও কবির বকুল, শুভাশিস প্রামাণিক শুভ, মুহিতুল আলম পাভেল, শাহপরাণ তুষার, জসিম উদ্দিন তপু, মোশারফ হোসেন, মো. সুমন ও কামরুল হাওলাদারকে ঘটনার জন্য দায়ী করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১ নভেম্বর মোহাম্মদপুরে ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় আবরার। মহাখালীর ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিল প্রথম আলোর কিশোর সাময়িকী কিশোর আলো। প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান কিশোর আলোরও প্রকাশক; আর কিশোর আলোর সম্পাদক হলেন আনিসুল হক।

পরে আবরারের বাবা মো. মুজিবুর রহমান গত ৬ নভেম্বর প্রথম আলো সম্পাদকসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনের বিরুদ্ধে আদালতে এ মামলা করেন।

advertisement