advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রোনালদোয় উড়ছে জুভেন্টাস

ক্রীড়া ডেস্ক
২১ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২১ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৩৭
advertisement

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর দুই গোলে পারমাকে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত করে সিরিএ লিগের শীর্ষে উঠে এসেছে জুভেন্টাস। এ জয়ে শিরোপা দৌড়ে দারুণভাবে টিকে থাকা ইন্টার মিলানের থেকে চার পয়েন্ট এগিয়ে গেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

টেবিলের তলানির দল লিসের সঙ্গে হতাশাজনকভাবে ১-১ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারিয়েছে ইন্টার। দিনের আরেক ম্যাচে আন্তে রেবিচের শেষ মুহূর্তের গোলে উদিনেসকে ৩-২ গোলে পরাজিত করেছে এসি মিলান।

তুরিনের আলিয়াজ স্টেডিয়ামে বিরতির ঠিক আগে রোনালদোর গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিক জুভেন্টাস। এ নিয়ে টানা সাতটি লিগ ম্যাচে গোল পেলেন পর্তুগিজ এই তারকা। ৫৮ মিনিটে পাওলো দিবালার ক্রসে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন রোনালদো। এর তিন মিনিট আগে আন্দ্রেস কর্নেলিয়াসের শক্তিশালী হেডে সপ্তম স্থানে থাকা পারমা ম্যাচে সমতায় ফেরে। গত সাত ম্যাচে এ নিয়ে ১১ গোল করলেন রোনালদো। এবারের মৌসুমে তার গোলসংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৬।

ম্যাচ শেষে রোনালদো বলেছেন, ‘আজকের জয়টা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ল্যাজিও জয়ী হয়েছে, ইন্টার ড্র করেছে, সে কারণেই এগিয়ে থাকাটা জরুরি ছিল। শেষের দিকে পারমা কিছুটা আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেছিল। যে কারণে আমরা নার্ভাস হয়ে পড়েছিলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জয় ধরে রাখতে পেরেছি।’

জুভেন্টাসের সঙ্গে এবারের মৌসুমে সমান তালে লড়াই চালিয়ে যাওয়া ইন্টার গত ৬টি লিগ ম্যাচের মাত্র দুটিতে জয়ী হয়ে চার পয়েন্ট পিছিয়ে পড়েছে। শনিবার সাম্পদোরিয়াকে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করে এখন শিরোপা দৌড়ে এগিয়ে এসেছে ল্যাজিও। ইন্টারের থেকে মাত্র দুই পয়েন্ট পিছিয়ে তারা তৃতীয় স্থানে রয়েছে। তার ওপর ল্যাজিওর হাতে একটি ম্যাচও বেশি আছে।

লিসের মাঠে অ্যান্টনিও কন্তের দল সর্বোচ্চ তিন পয়েন্ট অর্জনের লক্ষ্যেই মাঠে নেমেছিল। এই ক্লাব থেকেই কন্টে ১৯৮০ সালে তার পেশাদার ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। ৭১ মিনিটে বাস্তোনির গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ইন্টার। কিন্তু পাঁচ মিনিট পর মার্কো মানকোসুর গোলে মূল্যবান এক পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে রেলিগেশন জোন থেকে মাত্র এক ধাপ ওপরে থাকা লিস।

লিসে আবারও ফিরে আসার সুযোগ পেয়ে কন্তে বলেছেন, ‘আমার জন্য এখানে ফিরে আসাটা সব সময়ই আনন্দের। এ মাঠে আসার অর্থ হলো ৩০-৩৫ বছর পেছনে ফিরে যাওয়া। একজন বল বয় হিসেবে এখানে আমি ছোটবেলা কাটিয়েছি। এই ক্লাবের সঙ্গে আমার সম্পর্কটা অন্য ধরনের। কিন্তু একজন পেশাদার কোচ হিসেবে এখন আমি আমার দায়িত্বটা ঠিকভাবে পালন করতে চাই।’

advertisement
Evaly
advertisement