advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৩ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২০ ০১:১১
advertisement

ভোটার তালিকা হালনাগাদ না হওয়া ও তফসিল সংশোধনের সুযোগ না থাকার কারণ দেখিয়ে ঢাকার সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট হয়েছে। গতকাল বুধবার হাইকোর্টে এ রিট করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। আজ বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের বেঞ্চে আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে।

রিটে বলা হয়, সিটি নির্বাচনের জন্য প্রথমে ৩০ জানুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে তা সংশোধন করে ১ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করা হয়। বিধি অনুসারে নির্বাচন পেছানো নিয়ে তফসিল সংশোধনের সুযোগ নেই, পুনরায় তফসিল দিতে হয়। নির্বাচন কমিশন ১০ (১) বিধি অনুযায়ী তফসিল ঘোষণা করেছে, আবার একই বিধি অনুযায়ী তফসিল সংশোধিত করেছে, যা বৈধ নয়। এ অবস্থায় ২০১৯ সালের ২২ ডিসেম্বরের তফসিল এবং গত ১৮ জানুয়ারির সংশোধিত তফসিল অবৈধ হবে। এতে আরও বলা হয়, ২০১০ সালের সিটি করপোরেশন নির্বাচন বিধিমালার ২৭ বিধি অনুসারে নির্বাচনের আগে দুই সিটি করপোরেশনের ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হয়নি।

বিধি ১১ (১) অনুযায়ী, প্রতিবছর ২ থেকে ৩১ জানুয়ারি ভোটার তালিকা হালনাগাদের নিয়ম রয়েছে। কিন্তু খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ হয় গত ২০ জানুয়ারি। ভোটার তালিকা হালনাগাদের সময় ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত থাকলেও নতুন ভোটাররা তালিকায় অন্তর্ভুক্তি থেকে বঞ্চিত হবেন।

আবেদনে বলা হয়েছে, ২০১০ সালের সিটি করপোরেশন নির্বাচন বিধিমালায় স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থীর ক্ষেত্রে ৩শ ভোটারের স্বাক্ষরের বিধান রয়েছে। কিন্তু দলীয় প্রার্থীর ক্ষেত্রে এ বিধান না থাকাটা বৈষম্যমূলক এবং সংবিধানের ৭, ১৯, ২৬, ২৭, ২৮ ও ৩১ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।

advertisement
Evall
advertisement