advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

‘আমরা যেন এই মানুষটিকে ভুলে না যাই’

ববিতা অভিনেত্রী
২৩ জানুয়ারি ২০২০ ১২:৫৯ | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২০ ১৪:৩৯
রাজ্জাক-ববিতা। ফাইল ছবি
advertisement

রাজ্জাক ভাইয়ের হাত ধরেই বলা যায় আমার চলচ্চিত্রে আসা। প্রথম চলচ্চিত্র ‘সংসার’-এ রাজ্জাক ভাই ছিলেন আমার বাবা। আর সুচন্দা আপু অভিনয় করেছেন আমার মা চরিত্রে। এরপর ‘শেষ পর্যন্ত’ চলচ্চিত্রে রাজ্জাক ভাইয়ের নায়িকা হিসেবে আমি অভিনয় করি। এটি ১৯৬৯ সালের ১৪ আগস্ট মুক্তি পায়।

রাজ্জাক ভাই ছিলেন আমার অভিভাবক। সবসময় ছায়ার মতো তাকে পাশে পেয়েছি। তিনি সবসময় আমার কাজের দিকনির্দেশনা দিতেন। রাজ্জাক ভাইয়ের প্রোডাকশন হাউস রাজলক্ষ্মীর বেশির ভাগ ছবির নায়িকাই আমি। তার সঙ্গে বেশ কিছু ভালো ভালো চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছি আমি।

চলচ্চিত্রের বাইরেও আমাদের সম্পর্কটা ছিল পারিবারের মতো। রাজ্জাক ভাই আমাকে পপ বলে ডাকতেন। বেঁচে থাকতে তিনি প্রায়ই আমাকে ফোন করতেন। খোঁজখবর নিতেন, বাসায় নিমন্ত্রণ জানাতেন। আমিও তাকে ফোন করে খোঁজখবর নিতাম, নিমন্ত্রণ করতাম। আমার কাছে তিনি নায়ক ছিলেন না। আমি তাকে বলতাম দার্শনিক। জীবনের প্রতি তার অগাধ মমতা ছিল। সময়কে তিনি কাজে লাগিয়েছেন সফলভাবে।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করে গেছেন। রাজ্জাক ভাই আমাদের চলচ্চিত্র জগতের একটা ইন্সটিটিউশন। ওনার সঙ্গে কাজ করে অনেক কিছু শিখেছি। আমরা যেন এই মানুষটিকে ভুলে না যাই। এ প্রজন্মের শিল্পীরাও যেন তাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে। তার রেখে যাওয়া আদর্শ ও পথ অনুসরণ করে।

advertisement
Evaly
advertisement