advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী তরুণী হয়ে গেলেন কোটিপতি

অনলাইন ডেস্ক
২৩ জানুয়ারি ২০২০ ২১:৪৩ | আপডেট: ২৩ জানুয়ারি ২০২০ ২৩:০৬
কৌশল্যা কার্তিক। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

তিনি জন্মেছেন নানা ত্রুটি নিয়ে। তারপরেও নিজেকে তৈরি করেছেন আর দশটা মানুষের মতো। আরও সেটাই শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী তরুণী কৌশল্যা কার্তিকের লড়াই।

সে লড়াইয়ের জন্য এলাকার সবাই তাকে ভালোবাসেন। সবাই তাকে সাহায্য করেন। গর্ব করেন তাকে নিয়ে।

সেই গর্বের পরিধিটা আরও বাড়িয়ে দিলেন কৌশল্যা। তিনি ভারতের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘কউন বনেগা ক্রোড়পতি’র (কেবিসি) মঞ্চে হাজির হয়ে সবাইকে অবাক করে দিয়ে ১ কোটি রুপি জিতে নিয়েছেন।

গত মঙ্গলবার বিশেষভাবে সক্ষম প্রতিযোগী হিসেবে জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানের তামিল ভার্সনে উপস্থিত হয়েছিলেন কৌশল্যা। তার শ্রবণশক্তি ও বাকশক্তির সমস্যা রয়েছে। কিন্তু সে সব প্রতিকূলতা হয়ে দাঁড়ায়নি তার সাফল্যের জন্য। একে একে সব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে গত মঙ্গলবার কোটিপতি হয়ে গেলেন তিনি। কোটি টাকা জিতে একটি হোয়াইট বোর্ডে লিখে কৌশল্যা জানালেন, তিনি খুবই খুশি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তামিল নাড়ুর মাদুরাইয়ের বাসিন্দা কৌশল্যা কার্তিক। তিনি ছোটবেলা থেকেই শ্রবণ ও বাকশক্তির সমস্যায় ভুগছেন। ৩১ বছরের কৌশল্যা কার্তিক তামিল ক্রোড়পতি শোয়ের প্রথম কোটিপতি হয়েছেন। বিশেষভাবে সক্ষম কৌশল্যা মাদুরাইয়ের প্রিন্সিপাল ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কর্মরত।

‘কউন বনেগা ক্রোড়পতি’-র তামিল সংস্করণের নাম ‘কোডিশ্বরী’। ওই শোয়ের প্রত্যেকটি রাউন্ড অত্যন্ত বিচক্ষণতার সঙ্গে পেরিয়েছেন কৌশল্যা এবং অবশেষে ১ কোটি টাকা জিতে নিয়েছেন তিনি। তার এই জয়ে দর্শকও উচ্ছ্বসিত।

এই সাফল্যের পরে একটি বিবৃতিতে কৌশল্যা জানান, ‘প্রতিদিনের জীবনে আমাকে সবসময়ই আমার পরিবারের সদস্যের ওপর নির্ভর করতে হয়েছে। কিন্তু ছোটবেলা থেকেই আমার জেদ ছিল কীভাবে নতুন কিছু শিখতে পারি। আর যা শিখছি সেটাতে যেন উৎকর্ষতায় পৌঁছাতে পারি। আমি যে এই শো-তে অংশগ্রহণ করতে পেরেছি, তার জন্য আমি ‘‘কালারস তামিল’’কে অনেক ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি আরও জানান, ‘রাধিকা ম্যামের সঙ্গে হটসিটে বসার অভিজ্ঞতাটা দারুণ। উনি আমাকে অত্যন্ত সহজ করে নিয়েছিলেন। এই আইকনিক গেম শো-তে আসতে পেরে আর ক্রোড়পতি হিসেবে নিজেকে ঘোষণা করতে পেরে আমি খুব গর্বিত বোধ করছি।’

১ কোটি টাকা পুরস্কার মূল্যের একটা বড় অংশ তিনি দান করতে চান নগরকয়েল-এর ডিফ অ্যান্ড ডাম্ব স্কুলে। এইভাবেই তিনি পাশে দাঁড়াতে চান সেই শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের যেখান থেকে তার শিক্ষার সূত্রপাত। ওই স্কুলই তাকে প্রেরণা দিয়েছে প্রতিকূলতা জয় করে এগিয়ে যেতে। এ ছাড়া বিদেশ ভ্রমণের স্বপ্ন তার বহুদিনের। কৌশল্যা জানিয়েছেন হয় ইতালি নয়তো সুইজারল্যান্ডে বেড়াতে যাওয়ার ইচ্ছে রয়েছে তার।

advertisement