advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঢাবিতে ৪ ছাত্রকে নির্যাতন
শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে চার দফা দাবি

২৪ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৫২
আপডেট: ২৪ জানুয়ারি ২০২০ ০১:৫২
advertisement

শিবির সন্দেহে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের চার ছাত্রকে রাতভর ছাত্রলীগ কর্তৃক নির্যাতনের ঘটনায় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছেন সহপাঠী শিক্ষার্থীরা। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে নির্যাতনকারীদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেন ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টের শিক্ষার্থীরা। আগামী রবিবার এ ঘটনার বিচারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দেবেন বলে জানিয়েছেন তারা।
মানববন্ধনে অংশ নিয়ে শিক্ষার্থী কবিতা বলেন, ‘আমাদের বন্ধু মুকিমসহ চার ছাত্রকে নিষ্ঠুরভাবে মারা হয়েছে। সে শিবির করে নাকি অন্য কোনো দল করে সেটি একান্তই তার
ব্যক্তিগত বিষয়। তাকে মারার অধিকার কারও নেই। সে যদি কোনো অপরাধ করে থাকে, তা হলে সেটির বিচারের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আছে।’
মানববন্ধন থেকে তারা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে চার দফা দাবি জানান। দাবিগুলো হলোÑ যারা মুকিমের ওপর অন্যায়ভাবে পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে, তাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে; একটা নিরাপদ ক্যাম্পাস, যেখানে স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ ও স্বাধীনভাবে চলাফেরা করা যাবে এবং রাজনৈতিক মতের প্রতিফলন ঘটানো যাবে; আবাসিক হলগুলোতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে, প্রথম বর্ষ থেকেই হলে সিট বরাদ্দ দিতে হবে; এবং সিটবাণিজ্য বন্ধ করতে হবে।
মঙ্গলবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে চার শিক্ষার্থীকে রুম থেকে ডেকে নিয়ে রাতভর নির্যাতন চালায় হল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। শিবির সন্দেহে তাদের কয়েক দফায় নির্যাতন করার পর পুলিশে দেওয়া হয়। পর দিন মঙ্গলবার বিকালে শাহবাগ থানা থেকে মুচলেকা রেখে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। ঘটনার বিচার দাবিতে থানা থেকে ছাড়া পেয়েই রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে মুকিম চৌধুরী। টানা ২২ ঘণ্টা অবস্থানের পর শারীরিক দুর্বলতায় অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে জানায় সেখানে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা। পরে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক তাকে বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করেন।

advertisement
Evaly
advertisement