advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

যে মন্তব্যে রজনীকান্ত এখন ‘খলনায়ক’

অনলাইন ডেস্ক
২৪ জানুয়ারি ২০২০ ২০:৩৩ | আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ০১:১৭
জনপ্রিয় চলচ্চিত্র তারকা রজনীকান্ত। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় চলচ্চিত্র তারকা রজনীকান্তের বিরুদ্ধে তামিলনাড়ু রাজ্যে বিক্ষোভ হয়েছে। সুবিধাবঞ্চিত নিম্নবর্ণের হিন্দুদের জন্য কাজ করা পেরিয়ার ইভি রামস্বামীকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে বিক্ষোভ করে রাজ্যটির সাধারণ মানুষ।

আজ শুক্রবার এ বিক্ষোভের খবর প্রকাশ করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা

সম্প্রতি তামিল ম্যাগাজিন তুঘলক’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে পেরিয়ার ইভি রামাস্বামীর ১৯৭১ সালের একটি পদযাত্রা নিয়ে মন্তব্য করেন রজনীকান্ত। তিনি বলেছিলেন, সমাজ সংস্কারক পেরিয়ার ইভি রামাস্বামীর ১৯৭১ সালের পদযাত্রায় রাম ও সীতার উলঙ্গ ছবি ব্যবহার করা হয়েছিল। এ ছাড়া ওই ছবিতে জুতার মালা দিয়ে ওই পদযাত্রা ‘সালেম’ নামক স্থান প্রদক্ষিণ করেছিল। তুঘলক ম্যাগাজিনে ওই ঘটনার কয়েকটি ছবি প্রকাশের পর সেটি বাজেয়াপ্ত করা হয়। 

রজনীকান্তের ওই মন্তব্যের পর শুরু হয় সমালোচনা। শুধু তাই নয়, রীতিমতো নায়ক থেকে খলনায়ক বনে গেছেন তিনি। তার বর্ণনাকে বানোয়াট উল্লেখ করে রজনীকান্তকে মন্তব্যের জন্য তাকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান পেরিয়ার সমর্থকরা। এ ছাড়া ভিদুথালাই চিরুথাইগাই কাটচির (ভিসিকে) মতো রাজনৈতিক দলগুলো ওই মন্তব্য প্রত্যাহার না করলে রজনীকান্তের বাড়ি ঘেরাও করার মতো কর্মসূচি ঘোষণা করে।

তামিলনাড়ুর প্রধান রাজনৈতিক দল দ্রাবিড়িয়ান পার্টি রজনীকান্তের এমন মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে। তারা ওই বক্তব্যকে 'চরম মিথ্যা' বলে উল্ল্যেখ করে।

তবে পেরিয়ারের সমর্থকদের এমন আহ্বানকে উপেক্ষা করে গত মঙ্গলবার বিবৃতি দেন রজনীকান্ত। ওই মন্তব্যের জন্য তিনি অনুতপ্ত নন এবং এর জন্য তিনি ক্ষমাও চাইবেন না বলে জানান।।

ওই বিবৃতিতে রজনীকান্ত বলেন, 'সালেমের ওই পদযাত্রা অস্বীকার করার মতো কোনো ঘটনা নয়। কিন্তু ভুলে যাওয়ার মতো ঘটনা।'

রজনীকান্তের এই ঘোষণার পর বিক্ষোভ শুরু করে দ্রাবিড়িয়ান পার্টি এবং এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

স্থানীয় রাজনৈতিক দল দ্রাবিড় বিদুথলাই কাজগমের (ডিভিকে) প্রতিষ্ঠাতা কোলাথুর মণি জানান, রজনীকান্তকে 'অর্ধসত্য' বলার জন্য বাধ্য করা হয়েছে।

কোলাথুর মণি আল-জাজিরাকে বলেন, 'আমার মনে হয় যে, এই চাপটি বিজেপি থেকে আসছে। তারা অবশ্যই তার জন্য স্ক্রিপ্টটি লিখেছিল। কেন মানুষ এত নির্মমভাবে মিথ্যা বলে, তা আমি বুঝতে পারি না।'

তামিলনাডু রাজ্যের রাজনীতিতে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করে আছে স্থানীয় দ্রাবিড়িয়ান পার্টি। তাই রাজ্যটির রাজনীতিতে আধিপত্য বিস্তার করতে জনপ্রিয় অভিনেতা রজনীকান্তকে হাতিয়ার করেছে নরেন্দ্র মোদির ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৭ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজনীতি করার ঘোষণা দেন রজনীকান্ত। ২০২১ সালে অনুষ্ঠিতব্য রাজ্য নির্বাচনকে লক্ষ্য করে এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে ক্ষমতাসীন দলটি। 

advertisement