advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিয়ের বাড়ি থেকে ফেরা হলো না মা-মেয়ের

চৌধুরী ভাস্কর হোম মৌলভীবাজার
২৮ জানুয়ারি ২০২০ ২০:৩৬ | আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২০ ২০:৩৬
আগুনের সূত্রপাত হওয়া পিংকি সু-স্টোর
advertisement

আত্মীয়ের বিয়েতে হবিগঞ্জ থেকে সপরিবারে মৌলভীবাজারে গিয়েছিলেন দিপা রায় (৩৫)। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে পরিবারের সঙ্গেই হবিগঞ্জে ফেরার কথা ছিল আজ বা আগামীকালের মধ্যেই। কিন্তু মেয়ে বৈশাখীকে নিয়ে আর বাড়ি ফেরা হলো না দিপা রায়ের।

আজ মঙ্গলবার সকালে পিংকি সু-স্টোরে লাগা আগুনে পুড়ে অন্য স্বজনদের সঙ্গে মারা গেছেন মা-মেয়ে দুজনই। বিয়ের আনন্দের রেশ কাটতে না কাটতেই এখন পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তাদের এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না স্বজনদের কেউই।

পিংকি স্টোর নামের যেই দোকানটি থেকে ভয়াবহ আগুনের সূত্রপাত, সেই দোকানের উপর তলাতেই আত্মীয়ের বাসায় এক ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে অবস্থান করছিলেন দিপা রায়। আগুন লাগার পর বাসার অন্য সদস্যদের মতো দিপা রায়ও ছেলে-মেয়েদের নিয়ে ওই বাসায় আটকা পড়েন।

আগুন লাগার পর প্রাণ বাঁচাতে দিপা রায়ের ছেলে বাইরে বেরিয়ে আসতে পারলেও মেয়ে বৈশাখীকে নিয়ে বের হতে পারেননি তিনি। ফলে অন্য তিনজনের সঙ্গে আগুনে দগ্ধ হয়ে তারা দুজনও প্রাণ হারান।

দিপা রায়ের আত্মীয় কল্প রায় জানান, কয়েকদিন আগেই আত্মীয়ের বিয়েতে যোগ দিতে সপরিবারে মৌলভীবাজারে আসেন দিপা রায়। গত বুধবার বিয়ে পড়ানো সম্পন্ন হলেও গতকাল সোমবার ছিল বৌভাত। বৌভাতে অংশ নেওয়ার জন্যই মৌলভীবাজারে থেকে যান তিনি। তার গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার উমেদনগরে।

দিপা রায়ের স্বামী সজল রায়। দিপা-সজল দম্পতির দুই ছেলে ও এক মেয়ে ছিল।

প্রসঙ্গত, আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের সাইফুর রহমান রোডের পিংকি সু-স্টোরে গ্যাসের লাইন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। দোকানের পেছনে বাসায় এ সময় আটকা পরে কয়েকজন।

advertisement