advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সংবাদ সম্মেলনে খন্দকার মোশাররফ
আওয়ামী লীগই বাইরে থেকে অস্ত্র ও কর্মী এনেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
৩০ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩০ জানুয়ারি ২০২০ ০০:৫৭
advertisement

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন অভিযোগ করে বলেছেন, আওয়ামী লীগই ঢাকার বাইরে থেকে নেতাকর্মীদের এনে শহর সয়লাব করে ফেলেছে। ৩০ লাখ নেতাকর্মী ঢাকা শহরে এনেছে এবং তারা অস্ত্রশস্ত্রসহ এসেছে। এ অস্ত্র নিয়ে আসতে তাদের কর্মীরা সাহস পায়। কারণ পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে না। এ কাজটি তারা করেছে। এ কাজটি করবে বলে আগে থেকেই বিএনপির ওপরে দোষ চাপাতে শুরু করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

‘বিএনপি বহিরাগত গুণ্ডাদের ঢাকায় জড়ো করছে’Ñ ওবায়দুল কাদেরের এ রকম বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মোশাররফ।

গোপীবাগের আরকে মিশন লেনে প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার বাসায় এ সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও উপস্থিত ছিলেনÑ দক্ষিণের মেয়রপ্রার্থী ইশরাক হোসেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির

সদস্য মওদুদ আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল কবির খোকন, আফরোজা আব্বাস প্রমুখ।

নির্বাচনের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এখনো হয়নি বলে অভিযোগ করে মওদুদ বলেন, প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ওয়ার্ডে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের ভয় দেখানো হচ্ছে। বাসাবাড়িতে ঢুকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বিষয়গুলো নির্বাচন কমিশনকে জানানো হলেও ন্যূনতম কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না। নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন একচোখা।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, দক্ষিণের আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আমীর হোসেন আমু এক বক্তব্যে বলেছেন, বৃহস্পতিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যোনে জনসমাবেশ করবেন এবং সেখান থেকে তারা গণমিছিল করে শাপলা চত্বরে এসে নির্বাচনী প্রচার অব্যাহত রাখবেন। এটা নির্বাচনী আচরণবিধির স্পষ্টত লঙ্ঘন। নির্বাচনী আচরণবিধির ৭ নং ধারায় বলা আছে, গণসমাবেশ ও গণমিছিল করা যাবে না।

advertisement
Evaly
advertisement