advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

৭ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে বৃদ্ধ গ্রেপ্তার

আমাদের সময় ডেস্ক
৩০ জানুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩০ জানুয়ারি ২০২০ ০০:৫৭
advertisement

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে সাত বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে এক দর্জি ও চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বিধবাকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া গাজীপুরের শ্রীপুরে লাউশাক দেওয়ার কথা বলে ঘরে নিয়ে রশি দিয়ে হাত-পা বেঁধে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) : নাগেশ্বরীতে

সাত বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগে ষাটোর্ধ্ব ওই বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করে গতকাল বুধবার জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বল্লভেরখাষ ইউনিয়নের ওই শিশু স্থানীয় নুরানি মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার বিকালে বাড়ির পাশের উঠোনে খেলার সময় বৃদ্ধ হবিবর রহমান তাকে ফুসলিয়ে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটি রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে গিয়ে মা ও দাদিকে বিষয়টি জানায়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠায় এবং অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। রাতে শিশুটির দাদা বাদী হয়ে হবিবরকে আসামি করে কচাকাটা থানায় মামলা করেন।

কচাকাটা থানার ওসি মামুন অর রশিদ জানান, হবিবুরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বেগমগঞ্জ (নোয়াখালী) : বেগমগঞ্জের রাজগঞ্জ ইউনিয়নের এক শিশু (৮) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় আবুল খায়ের (৩৫) দর্জিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ জানায়, শিশুটিকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রলোভন দেখিয়ে কালীরহাট বাজারসংলগ্ন একটি স্থানে নিয়ে আবুল খায়ের ধর্ষণ করে। পরে তার চিৎকারে লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধারের পর নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে বেগমগঞ্জ থানায় একটি মামলা রুজুর পর পুলিশ আবুল খায়েরকে গতকাল বুধবার গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায়।

শ্রীপুর (গাজীপুর) : গাজীপুরের শ্রীপুরে লাউশাক দেওয়ার কথা বলে ঘরে আটকে রেখে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের চাওবন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে নির্যাতিতার বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে শ্রীপুর থানায় মামলা করে। পুলিশ এখনো ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। নির্যাতনের শিকার কিশোরীকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার এসআই আশরাফুল্লাহ জানান, আসামি গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) : হাজীগঞ্জে বিধবাকে ধর্ষণের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

থানাসূত্রে জানা যায়, উপজেলার হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের পশ্চিম হাটিলা গ্রামের তিন সন্তানের জননী বিধবা ওই নারীকে (৪০) একই গ্রামের আবদুল মমিনের ছেলে আবদুল হালিম (৪৫) কয়েকবার ধর্ষণ করে। এতে ওই বিধবা নারী গর্ভবতী হয়ে পড়েন। বিষয়টি জানাজানি হলে বিধবা হাজীগঞ্জ থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

হাজীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আবদুর রশিদ বলেন, আটক হালিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

advertisement
Evaly
advertisement