advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

‘বাজে লোকের কাছে’ বিক্রির হুমকির পর জর্ডানে গৃহকর্মী নিখোঁজ

সেলিম আকাশ,জর্ডান
১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২১:১২ | আপডেট: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২১:৪৫
জর্ডানে নিখোঁজ মিতু বেগম
advertisement

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানে পাড়ি জমানোর পর খোঁজ মিলছে না মিতু বেগম নামের এক নারী গৃহকর্মীর। তার স্বামী সাদেক মাতব্বরের দাবি, নিয়োগকর্তা মিতুকে ‘বাজে লোকের কাছে বিক্রি’ করার হুমকি দেওয়ার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন তার স্ত্রী।  এ অবস্থায় যতদ্রুত সম্ভব তাকে উদ্ধার করে দেশে পাঠাতে দূতাবাসের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাদেক। 

নিখোঁজ মিতুর গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারি উপজেলায়। স্ত্রী নিখোঁজের পর একটি ভিডিও বার্তা পাঠিয়েছেন তার স্বামী সাদেক মাতব্বর।

জর্ডানে কয়েকজন প্রবাসীর কাছে এ ভিডিও বার্তা পাওয়ার পর সাদেক মাতব্বরের সঙ্গে কথা হয়আমাদের সময়’র। তিনি জানান, গত তিন মাস আগে গৃহকর্মীর ভিসা নিয়ে জর্ডানে পাড়ি জমান তার স্ত্রী। কাজে যোগদানের শুরু থেকেই তাকে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয়।

সাদেক আরও জানান, কয়েকদিন সমস্যার কথা বললেও সংসারের দিকে তাকিয়ে কাজে লেগে থাকেন মিতু। কিন্তু সেখানে তাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হতো। তার দাবি, বিষয়টি নিয়ে জর্ডানের আকামা অফিসে মিতু অভিযোগ জানালে নিয়োগকর্তা তাকে বাজে লোকের কাছে বিক্রি করে দেওয়ার হুমকি দেয়। এর কিছুদিন পর থেকে মিতুর খোঁজ মিলছে না।

মুঠোফোনে কথা হলে সাদেক বলেন, জর্ডানে যাওয়ার পর নিয়মিত কথা হলেও কয়েকদিন আগে থেকে সেটি বন্ধ হয়ে যায়। তিনি ধারণা করছেন, নিয়োগকর্তার মাধ্যমেই তার স্ত্রী মিতু নিখোঁজ হয়েছেন। এ জন্য জর্ডান রাষ্ট্রদূতের কাছে দ্রুত বিষয়টি সমাধানের আবেদন করেছেন তিনি।

জানা গেছে, মিতুর সঙ্গে যোগযোগ করতে না পারায় তার পরিবার উৎকন্ঠায় দিন পার করছেন।

জর্ডানে রবিন নামের এক প্রবাসী আমাদের সময়কে জানান, সাদেকের ভিডিও বার্তাটি দেখার পর তিনি দূতাবাসের প্রথম সচিব মনিরুজ্জামান মনিরকে জানান।

মিতুর নিখোঁজের বিষয়ে জর্ডান দূতাবাসের দূতালয় ও প্রথম সচিব মুহাম্মদ বশিরআমাদের সময়কে জানান, সম্প্রতি ইতালি ভ্রমণের কারণে প্রথমে তিনি বিষয়টি জানতে পারেননি। তবে জর্ডানে ফেরার পর মিতুকে খুঁজে বের করতে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছেন তিনি।

advertisement