advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রাজধানীতে ৭ বছরের শিশু ‘ধর্ষণ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:২০ | আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:৪৫
প্রতীকী ছবি
advertisement

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শাকিল নামে এক কিশোরের বিরুদ্ধে। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় রায়েরবাজার এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

ভুক্তভোগীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর এক চাচাদৈনিক আমাদের সময়কে জানান, শিশুটির বাবা তার দুলাভাইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে মোহাম্মদপুরের রায়েরবাজার এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। তাদের প্রতিবেশী শাকিল। সকালে শিশুটি বাড়ির সামনে খেলাধুলা করছিল। এ সময় শাকিল তার খালাতো ভাই মার্বেলকে দিয়ে ‘দোকানে মজা কিনতে পাঠাবেন বলে’ ওই শিশুকে ডাকিয়ে আনেন। শিশুটি তাদের ঘরে গেলে ধর্ষণ করে শাকিল।

শিশুটির চাচা জানান, ঘটনার সময় শিশুটি চিৎকার শুরু করলে আরেক প্রতিবেশী তা শুনতে পারেন। এগিয়ে গিয়ে পরিস্থিতি দেখতে পেয়ে তিনি শাকিলের ঘরের দরজা ভাঙার চেষ্টা করেন। না পেরে ভুক্তভোগীর বাবাকে ডাকতে যান তিনি।

শিশুটির চাচা আরও জানান, এ সময় শিশুটির রিকশাচালক বাবা ঘুমিয়ে ছিলেন। ঘটনা জানতে পেরে তিনি দৌঁড়ে শাকিলের ঘরের দিকে যান। এ সময় শাকিল তাকে চড়-থাপ্পড় মেয়ে পালিয়ে যায়। পরে সন্তানকে নিয়ে প্রথমে তিনি বাংলাদেশ মেডিকেলে যান। তবে সেখানে নিয়ে মেয়েকে ভর্তি করাতে পারেননি। কারণ, শাকিলের পরিবার হাসপাতালে এসে তাদের অর্থের প্রলোভন দেখায়। শিশুটির বাবা না মানলে প্রথমে তাকে হুমকি দেওয়া হয়, পরে মোবাইল ছিনিয়ে নেয় শাকিলের পরিবার।

পরে বাংলাদেশ মেডিকেলের ভেতর বিবাদ শুরু করে দুই পরিবার। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা শিশুটিকে ভর্তি না নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) রেফার করে। কিন্তু সেখানে নিয়ে গেলেও পুলিশি অভিযোগ না থাকায় চিকিৎসকরা ভর্তি নিতে চাচ্ছিলেন না। পরে মোহাম্মদপুর থানায় শিশুটির বাবা ফোন করলে উপপরিদর্শক (এসআই) মো. খোরশেদ হাসপাতালে গেলে শিশুটিকে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি নেয় কর্তৃপক্ষ।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া দৈনিক আমাদের সময়কে ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে ওসিসিতে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শিশুটির বাবা জানান, এ ঘটনায় বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় আজ সন্ধ্যায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। তবে শাকিল পালিয়ে যাওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

মোহাম্মদপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. খোরশেদ দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘শিশু ধর্ষণের একটি মামলা হয়েছে। আমরা শাকিলকে গ্রেপ্তার অভিযানে আছি। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।’

advertisement
Evaly
advertisement