advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তাপসের আসনে সাঈদ খোকনের মনোনয়ন সংগ্রহ

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০১:১৫
আপডেট: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০১:১৫
advertisement

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন ঢাকা-১০ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। গতকাল শুক্রবার বিকালে ধানম-িতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এই ফরম সংগ্রহ করেন তিনি।
গতকাল পর্যন্ত ঢাকা-১০, বাগেরহাট-৪, যশোর-৬, গাইবান্ধা-৩ ও বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন ৭৮ জন। এ ছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে দলটির ফরম কিনেছেন ১৮ জন। ২১ মার্চ ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনে উপনির্বাচন হবে। বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনে ভোটের তারিখ এখনো
ঘোষণা করা হয়নি।
আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া জানান, আজ শনিবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় এবং স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা হবে। সেখানেই তিন আসন ও চসিকে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে ফের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চেয়েছিলেন মেয়র সাঈদ খোকন। তবে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দেয় ঢাকা-১০ আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে। ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়ে সাঈদ খোকনের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন। এবার তাপসের ছেড়ে দেওয়া আসনে লড়ে সংসদ সদস্য হতে আওয়ামী লীগের ফরম নিলেন সাঈদ খোকন। ডিএসসিসিতে ফের মনোনয়ন না পেলেও পরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য মনোনীত হন তিনি। ডিএসসিসির মেয়র হিসেবে ১৭ মে পর্যন্ত মেয়াদ রয়েছে তার।
সাঈদ খোকন গতকাল গণমাধ্যমকে বলেন, আমি সফলতার সঙ্গে ডিএসসিসির মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এখন ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে আগ্রহী। তাই দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছি। আশা করি, দল আমাকে সমর্থন দেবে।
এ আসনে সাঈদ খোকন ছাড়াও আওয়ামী লীগের ফরম নিয়েছেন আরও নয়জন। তারা হলেনÑ এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ইয়াদ আলী ফকির, বশির উদ্দিন, ব্যবসায়ী আদম তমিজী হক, আবদুল ওয়াদুদ, মোয়াজ্জেম হোসেন খান মজলিশ, কুদ্দুসুর রহমান, এএসএম কামরুল আহসান ও কাজী মোর্শেদ হোসেন কামাল।
বাগেরহাট-৪ আসনের জন্য ফরম নিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক মিজানুর রহমান জনি, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি আবদুর রহিম খান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও মোরেলগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিরুল আলম মিলন, মোরেলগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সদস্য প্রবীর রঞ্জন হালদার, আওয়ামী লীগ নেতা নকিব নাজিব, ইসমত আরা শিরিন চৌধুরী, মোশারফ হোসেন, এসএম রাজু, জামিল হোসাইন, বদিউজ্জামান সোহাগ ও এসএম মনিরুল ইসলাম।
গাইবান্ধা-৩ আসনে ২৫ জন মনোনয়নপত্র কিনেছেন। তারা হলেনÑ উম্মে কুলসুম স্মৃতি, শাহ মো. ইয়াকুব উল আজাদ, মাহমুদুল হক, একেএম মোকছুদ চৌধুরী, মফিজুল হক সরকার, ফজলুল করিম, ওমর ফারুখ, আজিজার রহমান খান, গোপাল চন্দ্র বর্মন, রেহেনা বেগম, তামান্না শারমিন, তোফাজ্জল হোসেন, এমএস রহমান, আবু বক্কার প্রধান, শাহারিয়া খান, জরিদুল হক, আমিনুল ইসলাম, সাদ্দাম হোসেন, মাজেদার রহমান দুলু, নুরুল ইসলাম প্রধান, দিলারা খন্দকার, শাহাদত রাজা, মতিয়ার রহমান ও সাঈদ রেজা।
যশোর-৬ আসনে ফরম নিয়েছেন শেখ আবদুর রফিক, শাহীন চাকলাদার, আবদুল মান্নান, এইচএম আমির হোসেন, ওয়াহিদ সাদিক, নওরিন সাদিক, তাপস কুমার দাস, হোসাইন মোহাম্মদ ইসলাম, শ্যামল সরকার, শেখ আবদুল ওহাব, কামরুজ্জামান, তানভীর আহম্মেদ বিপু ও জয়দেব নন্দী।
বগুড়া-১ আসনে ফরম নিয়েছেন মোজাহিদুল ইসলাম বিল্পব, জাহাঙ্গীর আলম, জিয়াউর রহমান শেখ, সিদ্দিকুর রহমান, মকবুলুর রহমান, সাহাদারা মান্নান, রেজাউল করিম মন্টু, আবদুর রাজ্জাক, এসএম খাবীরুজ্জামান, জাকির হোসেন, ছালের উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, রেজাউল করিম মন্টু, মোনতাজুর রহমান মন্টু, শাহজাহান আলী, আলমগীর শাহী, আছালত জামান, আনছার আলী ও ফজলুল হক সবুজ।
চসিকের মেয়র পদে মনোনয়ন নিয়েছেন বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির, নুরুল ইসলাম বিএসসি, বিএনপি সমর্থিত সাবেক মেয়র মঞ্জুর আলম, রেজাউল করিম চৌধুরী, খোরশেদ আলম, মুজিবর রহমান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আবদুস সালাম, ইমদাদুল ইসলাম, ইনসান আলী, মোহাম্মাদ ইউনুস, হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, সেলিনা খান, রেখা আলম, একেএম বেলায়েত হোসেন, মাহাবুবুল আলম, এরশাদুল আমিন, মনোয়ার হোসন ও দীপক কুমার পালিত। এ ছাড়া সিটির ৪১টি সাধারণ ও সংরক্ষিত ১৪টি ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের ফরম নিয়েছেন ৪০৫ জন।

advertisement