advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

উপনির্বাচন নিয়ে নিরুত্তাপ বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:৪৭
advertisement

জাতীয় সংসদের ঢাকা-১০, বগুড়া-১, যশোর-৬, বাগেরহাট-৪ এবং গাইবান্ধা-৩ এর শূন্য আসনে উপনির্বাচন নিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে তেমন উচ্ছ্বাস নেই। দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ থেকে জমা দেওয়াÑ সবই হয়েছে অনেকটা নীরবে। এর পরও আজ সোমবার বিএনপির পার্লামেন্টারি মনোনয়ন বোর্ড মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিয়ে প্রার্থী চূড়ান্ত করবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

দলের স্থায়ী কমিটির এক সদস্যসহ একাধিক নেতা আমাদের সময়কে জানান, ঢাকা-১০ আসনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখানে ভোটে লড়ার জন্য প্রতিটি দলেরই কেন্দ্রীয় নেতাদের আগ্রহ থাকে সর্বাগ্রে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে লড়ার জন্য সাংসদ ব্যারিস্টার

ফজলে নূর তাপস পদত্যাগ করায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। সেই হিসাবে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কাছে ফরম বিক্রি, জমা নেওয়ার জন্য প্রস্তুতিও নেয় বিএনপি। কিন্তু ধানমণ্ডি থানা বিএনপির সভাপতি শেখ রবিউল ইসলাম ছাড়া আর কেউই এ আসন থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেননি। আর এ থেকেই বোঝা যায়Ñ নির্বাচনের প্রতি বিএনপি নেতাকর্মীদের উচ্ছ্বাস কেমন। তবে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বাগেরহাট-৪ আসনে কাজী মনিরুজ্জামান, মনিরুল হক, কাজী খায়রুজ্জামান শিপন এবং গাইবান্ধা-৩ আসনে ধানের শীষে লড়তে মাইনুল হাসান সাদিক, রফিকুল ইসলাম ও মিজানুর রহমান সরকার মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন।

উপনির্বাচন নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে তেমন আগ্রহ না থাকার কারণ খুঁজতে গিয়ে দলটির স্থায়ী কমিটি ও নির্বাহী কমিটির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা হয়। তারা এর পেছনে দুটি কারণ দেখানÑ এক. খালেদা জিয়ার মুক্তি বিষয়ে দলের সিনিয়র নেতাদের ভূমিকায় তৃণমূলের প্রশ্ন এবং দুই. সদ্য অনুষ্ঠিত ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের অভিজ্ঞতা। নেতাকর্মীরা মনে করেনÑ এ সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া মানে পরাজয় নিশ্চিত।

এর পরও গত বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা ১০ হাজার টাকায় ফরম সংগ্রহ করেন। সেটি জমা দেওয়ার সময় আরও ২৫ হাজার টাকা দিতে হয়েছে। প্রার্থী ঠিক করতে আজ সন্ধ্যায় গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পার্লামেন্টারি মনোনয়ন বোর্ড বসবে। চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

advertisement
Evall
advertisement