advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনা সংক্রমণ
চীন থেকে আসছে কিট যাচ্ছে মাস্ক

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:৪৭
advertisement

করোনা ভাইরাস শনাক্তে বাংলাদেশকে ৫০০ কিট উপহার দিয়েছে চীন। আর চীন সরকারকে মাস্ক, গ্লাভস উপহার পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। গতকাল রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিংয়ের হাতে এসব স্বাস্থ্যসামগ্রী হস্তান্তর করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুুল মোমেন।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা ভাইরাস নিয়ে সমবেদনা প্রকাশ করে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে চিঠি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সহমর্মিতার নিদর্শন হিসেবে করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত চীনের জন্য মাস্ক, গাউন, ক্যাপ, হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, ‘করোনা ভাইরাস শনাক্তে চীন সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে ৫০০ কিট উপহার দেওয়া হয়েছে। এসব কিট দিয়ে ভাইরাস শনাক্ত করা সম্ভব। আগামী দুদিনের মধ্যে কিটগুলো বাংলাদেশে পৌঁছাবে।’

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বাংলাদেশ-চীন বাণিজ্যে সাময়িক সমস্যা হতে পারে, তবে বড় কোনো ঝামেলা

হবে না বলে মন্তব্য করেন রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। তার মন্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনও। রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, ‘ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমদানি ও রপ্তানিতে করোনা ভাইরাসের প্রভাবে তেমন বড় কোনো ঝামেলা তৈরি হবে না। তবে সাময়িক একটু সমস্যা হতে পারে। এরই মধ্যে নববর্ষের ছুটি শেষ হয়েছে, চীনারা কাজে ফিরতে শুরু করেছে। সহজেই সবকিছু সামলানো যাবে। এখনই বিকল্প বাজার খোঁজার সময় হয়নি। চীন এখনো আগের মতোই বাণিজ্য খাতে বাংলাদেশকে প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহ করতে পারবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন আরও বলেন, ‘চীন অনেক আস্থাশীল ও ত্বরিতকর্মা রাষ্ট্র। তাদের অনেক মেকানিজম ও বিকল্প পদ্ধতি জানা আছে। যে কারণে তারা খুব শক্তভাবে করোনা ভাইরাসকে মোকাবিলা করছে। ঠিক তেমনি তারা বাণিজ্যের দিকটিও গুছিয়ে নিতে পারবে। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দুই দেশের বাণিজ্যে তেমন কোনো সমস্যা হবে না।’

ড. মোমেন বলেন, ‘চীনের উহান প্রদেশের সব যোগাযোগব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ফলে সেখানে আটকেপড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনা সম্ভব হচ্ছে না। তবে চীন যখনই অনুমতি দেবে ঠিক তখনই তাদের ফিরিয়ে আনা হবে। সে বিষয়ে সরকার প্রস্তুত রয়েছে। সময়-সুযোগমতো সবাইকে নিরাপদে দেশে ফেরানো হবে।’

advertisement
Evall
advertisement