advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনাভাইরাসের মূর্তি বানিয়ে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান হিন্দু মহাসভার

অনলাইন ডেস্ক
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৫:১৫ | আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৫:১৫
গেরুয়া পোশাক পরিহিত স্বামী চক্রপাণি। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

করোনাভাইরাসে চীন যেখানে বিপর্যস্ত, সেখানে ভারতে ভাইরাসটিকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে হাস্যরস। এর আগে ভারতের হিন্দু মহাসভার সভাপতি স্বামী চক্রপাণি বলেছিলেন, শরীরে গরুর গোবর মাখলেই সেরে যাবে করোনাভাইরাস। এ নিয়ে চলমান হাস্যরসের মাঝেই নতুন তত্ত্ব হাজির করলেন তিনি। এবার করোনাভাইরাসের মূর্তি বানিয়ে ক্ষমা চাইতে বললেন এ ধর্ম গুরু।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টিভির অনলাইনে বলা হয়, স্বামী চক্রপাণি করোনাভাইরাসকে অবতার হিসেবে অভিহিত করে এর মূর্তি নির্মাণ করতে বলেছেন। আমিষভোজীদের শাস্তি দিতেই করোনাভাইরাস অবতার রূপে পৃথিবীতে এসেছে বলে দাবিও করেছেন তিনি।  

স্বামী চক্রপাণি বলেন, ‘করোনাভাইরাস কিছু বার্তা দিতে পৃথিবীতে এসেছে। যারা পৃথিবীর ক্ষুদ্র প্রাণগুলোকে মেরে খেয়ে ফেলছে, তাদের মৃত্যুর মতো চরম শাস্তি দিতেই করোনাভাইরাস পৃথিবীতে এসেছে। ভগবান নরসিংহ অবতার রূপে রাক্ষসদের ধ্বংস করতে ও শিক্ষা দিতে এসেছিলেন। চীনাদের এ থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত।’

তিনি বলেন, ‘চীনের উচিত করোনাভাইরাসের মূর্তি বানানো। মূর্তি বানিয়ে চীনের সব আমিষভোজীদের ক্ষমা চাইতে হবে। তাহলেই এই অবতার নিজের জগতে ফিরে যাবে। ভারতীয়রা পূজা করেন, তারা গো-হত্যার বিরোধী। ফলে নিজের থেকেই ভারতীয়দের শরীরে একটি স্বয়ং প্রতিরোধ শক্তি গড়ে উঠেছে।’

গতকাল সোমবার পর্যন্ত চীনে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৮৬৮ জনের। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭২ হাজার ৪৩৬ জনে।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। মহামারির আশঙ্কায় বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ ইতিমধ্যেই চীনের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রেখেছে। মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমিত হওয়া এ ভাইরাস ঠেকাতে চীন-ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করেছে বেশ কয়েকটি দেশ।

advertisement
Evall
advertisement