advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

চুড়িহাট্টা অগ্নিকাণ্ড নয়, হত্যাকাণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০১:২৫
advertisement

চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ড কোনো দুর্ঘটনা নয়; বরং এটি সরকারের গাফলতির ফলে সৃষ্ট হত্যাকাণ্ড। অবহেলার কারণে ঘটিত এই হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এএলআরডি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মানবাধিকারকর্মী সুলতানা কামাল এ কথা বলেন।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক এ উপদেষ্টা বলেন, ‘রাসায়নিক গুদামে আগুন লাগার পরই সবাই সরব হয়ে যায়। এর পর কি ঘটে সে বিষয়ে কেউ কোনো কথা বলে না। দায়বদ্ধতার অভাবে অবহেলা করে থাকে। কিন্তু পরে আবার একই ঘটনা ঘটে। এসব হত্যাকা-ের সুষ্ঠু বিচার হলে এমন ঘটনা বারবার হতো না।’

অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (এএলআরডি) নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা বলেন, ‘চুড়িহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে বিভিন্ন ব্যাংকের পক্ষ থেকে যে ৩০ কোটি টাকার অনুদান এসেছে, তা এখন পর্যন্ত কেন বণ্টন করা হয়নি তার পরিষ্কার ও স্বচ্ছ জবাবদিহি করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘৩ জনের লাশ শনাক্ত করা হয়নি। এ ছাড়া নিহত ও আহতদের পরিবারদের অনুদান প্রদানের কথা রয়েছে। কিন্তু কোনো কারণে এখন পর্যন্ত সেই অনুদান বণ্টন করা হয়নি। তার জবাবদিহিতারও প্রয়োজন।’

২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে পুরান ঢাকার চকবাজার চুড়িহাট্টা ওয়াহেদ ম্যানশনে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে আগুন লাগে। ওই ভবনে কেমিক্যাল গোডাউন থাকায় মুহূর্তে ভয়াবহ রূপ নেয় আগুন। ঘটনাস্থলেই পুড়ে মৃত্যু হয় ৬৭ জনের। দগ্ধ ১৫ জনের মধ্যে চারজন চিকিৎসাধীন মারা যান।

advertisement
Evall
advertisement