advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ডিবি সেজে চাঁদাবাজি, বরখাস্তকৃত পুলিশ কনস্টেবল গ্রেপ্তার

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৮:৪৬ | আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০৮
পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার মো. খায়রুল আলম (লাল বৃত্ত)। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে বরখাস্তকৃত এক কনস্টেবলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের সাহেবপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তির নাম মো. খায়রুল আলম (৩৮)। এ সময় তার সহযোগী আল আমিন (২৫) নামে একজন পালিয়ে যায়। পুলিশ খায়রুলের কাছ থেকে ডিবি পুলিশের একটি আইডি কার্ড, একটি পুলিশের আইডি কার্ড, একটি হ্যান্ডকাফ ও দুটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রুবেল হাওলাদার দৈনিক আমাদের সময়কে জানায়, আটকৃত খায়রুল ডিএমপি ট্রাফিকের দক্ষিণ বিভাগে কর্মরত একজন কনস্টেবল ছিল। দেড় বছর ধরে সে সাময়িকভাবে বরখাস্ত রয়েছে। সে বৃহস্পতিবার ডিএমপির ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) শিমুল রানা পরিচয়ে সিদ্ধিরগঞ্জের সাহেব পাড়া এলাকার রবিউল আলমের মালিকানাধীন মা ও শিশু কল্যাণ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে উপস্থিত হয়। সেখানে রবিউলকে তার স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বিভিন্ন রকম অনিয়মের কথা বলেন। এসব বিষয় মিটিয়ে ফেলার জন্য এ সময় তার কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

রবিউল টাকা দিতে অস্বিকার করায় তাকে জোর করে ঢাকা ডিবি অফিসে তুলে নিয়ে যাওয়ার ভয় দেখিয়ে টানা হেচরা করতে থাকে। রবিউলের চিৎকারে আসেপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং খায়রুলকে আটক করে। এ সময় রবিউলের আরেক সহযোগী আল-আমিন পালিয়ে যায়। পরে বিষয়টি সিদ্ধিরগঞ্জ থানাকে জানানো হলে পুলিশ এসে খায়রুলকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে।

পরে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খায়রুল জানায়, সে ডিবি নয় ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগের দক্ষিণ এলাকায় কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিল। বিগত দেড় বছর ধরে সে সাময়িকভাবে বরখাস্ত রয়েছে। এ বিষয়ে আজ শুক্রবার সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

advertisement