advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মুজিববর্ষে সংসদে বিশেষ অধিবেশন
প্রণব মুখার্জি আসছেন বক্তা হয়ে

আরিফুজ্জামান মামুন
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:৫৪
advertisement

মুজিববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে ২২-২৩ মার্চ জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডেকেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবন, তার সংগ্রাম ও অর্জনের ওপর আলোচনা হবে। এই বিশেষ অধিবেশনে ‘অধিবেশন বক্তা’ থাকবেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি।

কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধুর নাতনি ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক ও রুশনারা আলীকেও বিশেষ অধিবেশনে থাকার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এ ছাড়া নেপালের একজন সংসদ সদস্যও এই অধিবেশনে উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে টেলিফোন আলাপে ভারতের প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি মুজিববর্ষের বিশেষ অধিবেশনে বক্তৃতা করতে সম্মতি

জানিয়েছেন। আগামী ২ মার্চ দিল্লি যাচ্ছেন স্পিকার। ভারতের লোকসভা ও রাজ্যসভার স্পিকারদের সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও প্রণব মুখার্জির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন তিনি। এ সময়ে ঢাকা সফরের আমন্ত্রণপত্র প্রণব মুখার্জির কাছে হস্তান্তর করবেন তিনি।

বিশেষ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুকে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হবে। তার কর্মময় জীবন, সংগ্রাম, তিনি যে সাড়ে তিন বছর দেশের নেতৃত্ব দেওয়ার সময় পেয়েছিলেন, সেই সময় তার গৃহীত নানা পদক্ষেপ নিয়ে আলোকপাত করা হবে। তার সময়ে সংসদে যেসব আইন প্রণয়নসহ বড় বড় সিদ্ধান্ত এসেছিল, তা তুলে ধরা হবে। দেশকে এগিয়ে নেওয়ার যে ভিত বঙ্গবন্ধু স্থাপন করেছিলেন, সেসব নিয়ে আলোচনা হবে।

মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানের জন্য সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় বঙ্গবন্ধু স্মরণে বিশেষ মঞ্চ করা হবে। যেখানে বছরব্যপী অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকবে। থাকবে ছবি ও ভিডিও প্রদর্শনীর ব্যবস্থা। এতে পাকিস্তানের গণপরিষদ, স্বাধীন দেশে নতুন সংবিধান প্রণয়ন ও জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধুর কাজগুলো তুলে ধরা হবে।

মুজিববর্ষের বছরব্যাপী আয়োজনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে ১৭ মার্চ, বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে। জমকালো এই আয়োজনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক উপস্থিত থাকবেন। এ ছাড়া আরও বিদেশি অতিথি আসতে পারেন বলে জানা গেছে।

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীকে। ২৬ মার্চের রাষ্ট্রীয় আয়োজনগুলো মুজিববর্ষ বিবেচনায় রেখে সাজানো হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, জন্মশতবার্ষিকীর বছরব্যাপী আয়োজনে বিভিন্ন সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শীর্ষনেতারা উপস্থিত থাকবেন।

advertisement