advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

করোনায় বিপর্যস্ত রোম, ভক্তকে চুমু খেয়ে অসুস্থ পোপ

অনলাইন ডেস্ক
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২০:৩৭ | আপডেট: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:২৮
রোমে একটি সমাবেশে যোগ দিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন পোপ ফ্রান্সিস। ছবি : ডেইলি মেইল
advertisement

ভক্তদের গালে চুমু ‍দিয়ে ও মাথায় হাত বুলিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন রোমান ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। ইতালির রোম শহরের সেন্ট পিটার্সবার্গ স্কয়ারে এক সমাবেশে অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ইতালির রোমে সমাবেশে অংশ নিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তার শরীরে এই ভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে এমন গুঞ্জনও ছড়িয়ে পড়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রোমান ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার রোমের পাদ্রীদের সঙ্গে এক গণজমায়েতে অংশ নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেননি।

পোপের শরীরে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে গুঞ্জন ছড়ালেও এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো তথ্য জানায়নি ভ্যাটিকান সিটি কর্তৃপক্ষ। তারা শুধু জানিয়েছে, ৮৩ বছর বয়সী পোপ হালকা অসুস্থতায় ভুগছেন। রোমের পাদ্রীদের সঙ্গে গণজমায়েতে অংশ নিতে পারবেন না তিনি। তবে পূর্বনির্ধারিত অন্যান্য কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবেন। তিনি ভ্যাটিকানের শান্তা মার্তা হোটেলের কাছে অবস্থান করবেন, যেখানে তিনি বসবাস করেন।

চোখ মুছতে ও নাক ঝাড়তে দেখা গেছে পোপ ফ্রান্সিসকে। ছবি : ডেইলি মেইল

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইলে প্রকাশিত কয়েকটি ছবিতে পোপ ফ্রান্সিসকে চোখ মুছতে ও নাক ঝাড়তে দেখা গেছে। সমাবেশে যোগ দিয়ে ভক্তদের সঙ্গে তিনি হাত মেলান, শিশুদের চুমু দেন কারও মাথায় হাত বুলিয়ে দেন, এসব ছবিও প্রকাশ পেয়েছে।

দৈনিক ডেইলি মেইল আরও জানিয়েছে, পোপ এমন একটি সময় সমাবেশে যোগ দিয়েছেন, যে সময় রোম করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিপর্যস্ত। তাকে হাঁচি দিতে দেখা যায়, চোখ মুছছিলেন এমনকি নাক ঝারছিলেন। যে কারণে পোপে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে গুঞ্জন ছড়িয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে শক্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ইতালিতেই করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১২ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৪০০ জন। এর মধ্যে রোমেও বেশ কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছেন। তবে রোম কর্তৃৃপক্ষ বলছে, আক্রান্তরা অনেকেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

advertisement
Evall
advertisement