advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত দিয়েছেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:২৩
advertisement

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিষয়টি গভীরভাবে বিবেচনা করেই হাইকোর্ট আইনি সিদ্ধান্ত দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। গতকাল বিকালে জামিন আবেদন খারিজের বিষয়ে রাজধানীর গুলশানে নিজ অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে হাইকোর্ট দ্বিতীয় দফায় জিয়া চ্যারিটেবল

ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে আনিসুল হক বলেন, ‘ডাক্তাররা জানিয়েছেন তার (খালেদা জিয়া) যেই চিকিৎসাটা প্রয়োজন, সেই চিকিৎসাটা চালানোর জন্য অনুমতি প্রয়োজন। কিন্তু তারা সেই অনুমতি পাননি এবং সেই জন্যই তারা এই চিকিৎসা শুরু করতে পারছেন না। একজন যদি গুরুতর অসুস্থ হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে তার চিকিৎসার জন্য অনুমতি দেওয়াটাই স্বাভাবিক। এখানে যে অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না সেটাকে আমরা তার দিক থেকে অস্বাভাবিক মনে করছি।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগে আগে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন করা হয়েছিল। তখন আপিল বিভাগ কিছু অবজারভেশন দিয়ে সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন। আবার বিএনপির আইনজীবীরা খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য আবেদন করেন। সেখানে আদালত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ডাক্তারদের কাছে একটা প্রতিবেদন চেয়েছেন। আদালত বলেছেন সেই প্রতিবেদন পাওয়ার জন্য আমাদের বেশ কিছু প্রশ্ন ছিল। সেখানে মৌলিক প্রশ্নটা ছিল, আপিল বিভাগ তার অ্যাডভান্স ট্রিটমেন্টের জন্য খালেদা জিয়ার একটা অনুমতি লাগবে, সেই অনুমতি তিনি দিয়েছেন কিনা। ডাক্তারদের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, তিনি নাকি সেই অনুমতি দেননি।’

আনিসুল হক বলেন, ‘যেহেতু চিকিৎসাটা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে করা যায় এবং সেখানে যেহেতু তারা খালেদা জিয়ার অনুমতি পাননি, তাই তারা চিকিৎসা কাজ শুরু করতে পারেননি। আদালত বলেছেন, তিনি (খালেদা জিয়া) যেহেতু অনুমতি দেননি, এতে আমাদের করার কিছু নেই। সেজন্য আবেদনটি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।’

জামিন খারিজের এই আদেশের মধ্য দিয়ে ‘সরকারের হিংস্রাশ্রয়ী নীতির বহির্প্রকাশ ঘটল’ বলে যে মন্তব্য বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী করেছেন, সে বিষয়েও কথা বলেন আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘বিএনপি থেকে অনেক কিছু দাবি করা হয় যেগুলো অযৌক্তিক। সেগুলোর জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করি না আমি। সেগুলোর বিচার আপনারা করবেন, জনগণ করবেন।’

advertisement
Evall
advertisement