advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনার ‘লক্ষণ’ নিয়ে মৃত্যু ৫

আমাদের সময় ডেস্ক
২৬ মার্চ ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৬ মার্চ ২০২০ ০৭:১৬
advertisement

 

মরণঘাতী ভাইরাস করোনা প্রতিরোধে আর কোনো ফাঁক রাখতে চায় না প্রশাসন। কোথাও কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত কিংবা মৃত্যু সন্দেহ হলেই লকডাউন করে দেওয়া হচ্ছে ওইসব এলাকা। কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হচ্ছে পরিবারের সদস্য ও সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের। নির্দেশ মানায় বাধ্য করাতে তাদের বাড়ি বাড়ি পাহারায় বসানো হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদে

জানা যায়, করোনার লক্ষণ ও উপসর্গ নিয়ে মঙ্গলবার রাত থেকে গতকাল বুধবার পর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

মানিকগঞ্জ : জ্বর-কাশিতে আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মৃত্যুর পর মানিকগঞ্জে এক ব্যক্তিকে দাফনের পর একটি গ্রামকে লকডাউন করে দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। একই সঙ্গে ওই গ্রামে ছয়টি বাড়ির ২৬ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘিওর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শিবচর (মাদারীপুর) : ঢাকার আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিবচরের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ইতালিফেরত এক প্রবাসীর বাবা। ওই প্রবাসীর স্ত্রী, দুই সন্তান, শাশুড়িসহ পরিবারের আরও ৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

সীতাকু- (চট্টগ্রাম) : সর্দি-কাশি ও জ্বরে এক নারীর (৫৫) মৃত্যু হওয়ায় করোনা নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে চট্টগ্রামের সীতাকু-ে। তবে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নুর উদ্দীন বলেন, ওই নারী হার্টের রোগী ছিলেন। তার মায়ের ছিল শ্বাসকষ্ট। বৃদ্ধা মায়ের সেবা করতে গিয়েই সম্ভবত তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তারা কেউই করোনায় আক্রান্ত ছিলেন না। এর পরও সন্দেহ থাকায় তার স্বজনদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে।

সিলেট : হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা সিলেটের এক বৃদ্ধ (৬৫) মারা গেছেন। মঙ্গলবার রাতে নিজ বাসায় তার মৃত্যু হয়। নগরের হাউজিং এস্টেট এলাকার ওই বাসিন্দা দেশে থাকলেও তার ছেলে সপ্তাহখানেক আগে যুক্তরাজ্য থেকে দেশে এসেছিলেন বলে জানা যায়।

রাজশাহী : করোনা ভাইরাস পরীক্ষার আগেই জ্বর-সর্দি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন নারীর মৃত্যু হয়েছে। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে ৪৬ বছর বয়সী ওই নারী মারা যান।

এ ছাড়া কক্সবাজারে করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ায় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা লকডাউন করা হয়েছে। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে গতকাল সকাল থেকে লকডাউন করা হয়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহর। খুলনা, সাতক্ষীরার কলারোয়া, রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সব মার্কেট ও দোকানপাট। কোনো প্রয়োজন ছাড়া স্থানীয়দের বাড়ির বাইরে যেতে নিষেধ করেছেন নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন।

 

 

 

advertisement
Evall
advertisement