advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

৭ মাসের শিশু আইসোলেশনে, সিঙ্গাপুরফেরত বাবা লাপাত্তা

২৬ মার্চ ২০২০ ১৫:২২
আপডেট: ২৬ মার্চ ২০২০ ১৬:৫৮
সিঙ্গাপুরফেরত প্রবাসীর শিশু সন্তান আইসোলেশনে, বাড়ি লকডাউন, নিজেও লাপাত্তা। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত সন্দেহে সাত মাস বয়সী শিশুকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়েছে। আইসোলেশনে থাকা শিশুটির সিঙ্গাপুরফেরত বাবাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

আজ বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) তাপস কুমার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত ২৩ মার্চ শিশুটিকে তার পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সে সময় শিশুটির জ্বর, ঠান্ডা, কাশি ছিল। ওই দিন তার পরিবারের সদস্যরা জানান, তাদের পরিবারের কেউ সম্প্রতি বিদেশ থেকে আসেননি কিংবা কোনো প্রবাসীর সংস্পর্শে যাননি। সেদিন শিশুটিকে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

তাপস কুমার জানান, শিশুটিকে নিউমোনিয়ার চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। আজ বৃহস্পতিবার তার অবস্থা অবনতি হয়। বিষয়টি আইইডিসিআরকে জানানো হয়েছে।

তিনি জানান, আজ বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসকরা পুনরায় ওই পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় ওই পরিবারের এক আত্মীয় জানান, অসুস্থ শিশুটির বাবা গত ৯ মার্চ সিঙ্গাপুর থেকে দেশে এসেছেন। কোয়ারেন্টিনে না থেকে তিনি পরিবারের সঙ্গে স্বাভাবিকভাবে মিশেছেন। এ তথ্য জানার পর শিশুটিকে আইসোলেশনে নেওয়া হয়।

তিনি আরও জানান, শিশুটির বাবাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। শিশুর পরিবারের বাকি সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। কুষ্টিয়া শহরের কালিশংকরপুরে অবস্থিত ওই প্রবাসীর বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

advertisement
Evall
advertisement