advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে আরও কঠোর হচ্ছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৬ মার্চ ২০২০ ১৮:৫৬ | আপডেট: ২৬ মার্চ ২০২০ ১৯:০৮
করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে তৎপর পুলিশ সদস্যরা
advertisement

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে যাচ্ছে পুলিশ। কোয়ারেন্টিন অমান্যকারীদের ক্ষেত্রে প্রথম দিকে কিছুটা নমনীয় আচরণ করলেও এখন অবস্থান পাল্টেছেন বাহিনীর সদস্যরা। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া কাউকে রাস্তায় দেখলে ভর্ৎসনা করা ছাড়াও লাঠিচার্জ করতে বাধ্য হচ্ছেন তারা।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রামপুরা জোন সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, পণ্যবাহী যানবাহনসহ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত যানবাহন, ড্রাইভার, হেলপারদের বাধ্যতামূলকভাবে জীবাণুনাশক পদার্থ দ্বারা পরিষ্কার করে গন্তব্য যেতে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। জনস্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক পয়েন্টে করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধ সংক্রান্ত ব্যানার, ফেস্টুন জনসাধারণের মাঝে বিতরণ ও ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

এ ছাড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে জনসমাগমস্থল, রাস্তাঘাট, বিমানবন্দর, বিভিন্ন বন্দরের ইমিগ্রেশন এলাকা, হাসপাতাল ও কোয়ারেন্টিন সেন্টারের নিরাপত্তায় দিন-রাত সম্মিলিতভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যরা।

পাশাপাশি এই ঝুঁকির মধ্যেও ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার চৌরাস্তা, রামপুরা বিটিভি ভবন, গোলাপবাগ, মানিকনগর, শনির আখড়া, ওয়ারী জোনের রাজধানী ক্রসিং, দয়াগঞ্জ চৌরাস্তা, পোস্তগোলা ব্রীজের প্রবেশ পথ, সবুজবাগ জোনের খিলগাঁও এলাকায় জিক-জ্যাক চেকপোস্ট পরিচালনা করে যানবাহন নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত থাকতে দেখা গেছে পুলিশ সদস্যদের।

ডিএমপির উপকমিশনার (ডিসি-মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ) মো. মাসুদুর রহমান বলেন, 'ডিএিমপিতে কর্মরত সব পুলিশ সদস্যকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। নিয়মিত হাত ধোয়া, মাস্ক ও গ্লাভস ব্যবহার করা ছাড়াও জনসমাগম যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। করোনা প্রতিরোধে করণীয় বিষয়গুলোর উল্লেখ করা ফেস্টুন থানাগুলোর দৃশ্যমান স্থানে লাগানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।'

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকারি আদেশ অমান্য করে যারা বিনা প্রয়োজনে রাস্তায় অবস্থান করবেন তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ আরও কঠোর অবস্থান গ্রহণ করবে জানান ডিসি মাসুদুর রহমান।

ট্রাফিক পূর্ব বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. সাহেদ আল মাসুদ বলেন, 'করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বাংলাদেশ পুলিশের সকল ইউনিট সম্মিলিতভাবে কাজ করছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জনস্বার্থের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পণ্যবাহী যানবাহনসহ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত যানবাহনে বাধ্যতামূলকভাবে জীবাণুনাশক পদার্থ দ্বারা পরিস্কার করা হচ্ছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে বাসা থেকে বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হতে হচ্ছে মাঠ পর্যায়ে দায়িত্বপালনকারী পুলিশ সদস্যদের।' 

ডিসি সাহেদ আল মাসুদ আরও বলেন, 'করোনাভাইরাস যেন সংক্রমিত না হয় সে লক্ষ্যে প্রত্যেক দেশপ্রেমিকেরই উচিৎ ঘরে থাকা। নিজেদের প্রয়োজনেই সরকারি আদেশ মান্য করা। আমরা আপনাদের জন্য ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় আছি, আপনারা ঘরে থেকে নিজ দায়িত্ব পালন করুন। কারণ, আপনি সচেতন তো জাতি সুরক্ষিত।'

করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে জনস্বার্থে পরিবহন মালিক-শ্রমিক ও সাধারণ মানুষের সহযোগিতায় ডিএমপির মাঠ পর্যায়ের এই কঠোর পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছেন পরিবহন মালিকসহ অনেকেই।

advertisement
Evaly
advertisement