advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মধ্যরাতে অসহায়দের দিকে সাহায্যের হাত বাড়ালেন রুবেল

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৭ মার্চ ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৭ মার্চ ২০২০ ০৭:৩৯
advertisement

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দশ দিনের সাধারণ ছুটি বাংলাদেশজুড়ে। এতে অসহায় হয়ে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিশ্বের সব স্থানে একই অবস্থা।

অসহায়দের সাহায্যে নিজেদের সাধ্যমতো দান করছেন বিশ্বের অনেক তারকা খেলোয়াড়রা। বাংলাদেশের ২৭ ক্রিকেটার তাদের এক মাসের বেতনের অর্ধেকটা দিয়েছেন আক্রান্তদের জন্য। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের এক মাসের বেতনের অর্ধেকে ২৬ লাখ টাকার একটি তহবিল গঠন হয়েছে।

এর বাইরেও ব্যক্তিগতভাবে অসহায়দের সাহায্য করছেন অনেক ক্রিকেটারই। এর মধ্যে আছেন বাংলাদেশের পেসার রুবেল হোসেন।

বুধবার মধ্যরাতে অসহায় মানুষদের সাহায্যার্থে রাস্তায় নামলেন রুবেল। অসহায়দের সাহায্য করার ছবি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন তিনি। পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন রুবেল, ‘এখন আতঙ্কিত হওয়ার সময় নয়, এখন সময় নিজেকে সুরক্ষিত রেখে আশপাশের মানুষজনকে সাহায্য করার। আসুন না, এই দুর্যোগে আমরা যে যেভাবে পারি, সেভাবে অসহায় মানুষদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিই।’

কিছুদিন আগে করোনা ভাইরাস নিয়ে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে একটি বার্তা দিয়েছিলেন রুবেল। লোভী মুনাফাখোর ব্যবসায়ীদের মধ্যে যারা কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াচ্ছেন তারাই আসলে দেশের করোনা ভাইরাস বলে আখ্যায়িত করেন তিনি।

রুবেল লেখেন, ‘লোভী ও নির্মম জাতি আমরা। চায়নায় এত বড় একটা বিপর্যয় গেল, মাস্কের দাম কমিয়ে দিল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান; কারণ তারা মানুষ। আর করোনার নাম শুনেই ৫ টাকার মাস্ক ৫০ টাকা, ২০ টাকার মাস্ক ১০০-১৫০ টাকা! কারণ আমরা লোভী, অমানুষ!

শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি একাত্তরের সেই বীরসন্তানদের, যাদের মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা পেয়েছি এই স্বাধীনতা। অথচ আজ কেন এই বিপর্যয়, আমরা সবাই এক নই। কেন?

মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং মুদি বাজারের সমস্ত জিনিসপত্রের দাম বেড়েই চলেছে। ধিক্কার জানাই ওই সমস্ত লোভী মুনাফাখোর ব্যবসায়ীকে। যারা কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াচ্ছে তারাই আসলে দেশের করোনা ভাইরাস।’

advertisement
Evall
advertisement