advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনার উপসর্গ নিয়ে বগুড়ায় একজনের মৃত্যু  

নিজস্ব প্রতিবেদক,বগুড়া
২৮ মার্চ ২০২০ ১৬:২৪ | আপডেট: ২৮ মার্চ ২০২০ ১৭:০৯
advertisement

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ (জ্বর, কাশি ও শ্বাস কষ্ট) নিয়ে মাসুদ রানা (৪৫) নামের এক ব্যক্তির মারা গেছেন। আজ শনিবার ভোরে উপজেলার ময়দানহাটা ইউনিয়নের মহব্বত নন্দীপুর গ্রামে তিনি মারা যান।

করোনায় মাসুদের মৃত্যু হয়েছে বলে সন্দেহ করছে চিকিৎসকরা। তাই মৃতদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনার পর এলাকার ১৫টি বাড়ি লক ডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, মৃত মাসুদ রানা কাহালু উপজেলার মুরইল গ্রামের কোরবান আলী শেখের ছেলে। তিনি ঢাকার কাশিম বাজারে ব্যবসা করতেন। তার স্ত্রী সাজেদা বেগম বেসরকারি সংস্থা টিএমএসএস-এ চাকরি করার কারণে শিবগঞ্জ উপজেলার ময়দানহাটা ইউনিয়নের মহব্বত নন্দীপুর গ্রামে ৮ বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। মাসুদ রানা ঢাকায় অবস্থান কালে গত ২৪ মার্চ থেকে জ্বর, সর্দি কাশি ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হন। এমন অবস্থায় গতকাল শুক্রবার তিনি শিবগঞ্জে স্ত্রীর বাসায় চলে আসেন। সন্ধ্যার পর তিনি বেশি অসুস্থ হলে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছ থেকে ওষুধ কিনে সেবন করেন। এ অবস্থায় আজ শনিবার ভোরে তিনি মারা যান।

মাসুদ রানার মৃত্যুর পর তার স্ত্রী করোনাভাইরাস সক্রান্ত হট লাইনে ফোন করে  ডা. শফিক আমিন কাজলকে বিষয়টি জানান। এরপর আজ সকাল ১০টায় ঘটনাস্থলে যান শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মোরতজা আব্দুল হাই শামীম।

এ বিষয়ে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. শফিক আমিন কাজল বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে ঢাকায় কথা বলেছি। মৃতদেহে থেকে নমুনা হিসেবে লালা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর-এ পাঠানো হবে।’

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আলমগীর কবীর জানান, ওই বাড়িসহ পাশের ১৫টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সেখানে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অবস্থান করছেন।

advertisement
Evall
advertisement