advertisement
advertisement

হবিগঞ্জে পুলিশের বাড়িতে ডাকাতি ওসি বললেন নাটক

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
৩০ মার্চ ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২০ ০০:৩৫
advertisement

মাধবপুর উপজেলায় এক পুলিশ সদস্যের বাড়িতে গত শনিবার গভীর রাতে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা গৃহকর্তা ও তার মাকে হাত-মুখ বেঁধে নগদ ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল নিয়ে গেছে। তবে মাধবপুর থানার ওসি বলছেন, এটি নাটক।

উপজেলার বহরা ইউপির গিলাতলী গ্রামের পুলিশের এএসআই আনোয়ার আলম খান সুনামগঞ্জের ছাতক থানায় কর্মরত। মোবাইল ফোনে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বাড়িতে তার ছোট ভাই অ্যাডভোকেট শাহিনূর আলম খান ও বৃদ্ধা মা সাহেদা খানম থাকেন। শনিবার রাত আড়াইটার দিকে একদল ডাকাত তার বাড়ির রান্নাঘরের দরজা ভেঙে দুটি শয়নকক্ষে প্রবেশ করে। ১০/১২ জনের ডাকাত দল ঘরে প্রবেশ করেই তার ছোট ভাই ও মায়ের হাত-মুখ বেঁধে ফেলে। তারা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ঘরের জিনিসপত্র তছনছ করে। একপর্যায়ে ট্রাঙ্ক ও আলমারীর চাবি নিয়ে ঘরে থাকা নগদ ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা, ১০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৩টি মোবাইল সেট নিয়ে ডাকাতরা চম্পট দেয়। নগদ টাকার মধ্যে জমি বন্ধক দিয়ে আনা ১ লাখ এবং ৪০ হাজার টাকা স্থানীয় মসজিদের ফান্ডের ছিল বলে জানান তিনি।

মাধবপুর থানার ওসি ইকবাল হোসেন বলেন, “খবর পেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান ফারুক পাঠানকে নিয়ে ঘটানস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রাথমিক তদন্তে ডাকাতির আলামত পাওয়া যায়নি। ওই গ্রামে পাহারাদার নিযুক্ত রয়েছে। পূর্বশত্রুতাবশত কাউকে ফাঁসানোর জন্য ‘নাটক’ সাজানো হতে পারে।”

এ ব্যাপারে এএসআই আনোয়ার আলম খান বলেন, ‘আমাদের পরিবারের সঙ্গে কারও শত্রুতা নেই। কোনো মামলাও নেই। ওসির মন্তব্যটি অবান্তর।’ মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

advertisement