advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অল্পের জন্য মৃত্যুর খুব কাছ থেকে ফিরে এলেন লিটনপত্নী

স্পোর্টস ডেস্ক
৩০ মার্চ ২০২০ ১২:৪৯ | আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২০ ১৬:৪২
নিজের পুড়ে যাওয়া হাতের ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেন লিটনের স্ত্রী সঞ্চিতা। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওপেনার ও উইকেটরক্ষক লিটন দাসের স্ত্রী দেবশ্রী বিশ্বাস সঞ্চিতা অল্পের জন্য বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে গেছেন। গত শুক্রবার নিজ বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনায় রক্ষা পান তিনি।

ঘটনার দুদিন পর গতকাল রোববার দিবাগত রাতে নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বিষয়টি জানান লিটনের পত্নী। পরে ফেসবুক থেকে সেই স্ট্যাটাস মুছে ফেলেন তিনি।

স্ট্যাটাসে সঞ্চিতা লিখেন, ‘আসলে আমি একটি দুর্ঘটনার মধ্যে পড়েছিলাম। তাই মেসেঞ্জারে অ্যাকটিভ ছিলাম না, অনেকের উত্তর দিতে পারিনি। গত পরশু বরাবরের মতোই আমি রান্নাঘরে যাই চা বানাতে। আমি যখন গ্যাস প্রথমবার অন করি তখন অল্প জ্বলে নিভে গেল। এরপর দ্বিতীয়বার বার্নার প্রেস করতেই বিস্ফোরণ হয়। নতুন বাসা তাই সিলিন্ডার ব্যবহার করি। যদিও সিলিন্ডারটা নিচে ছিল। নিচের সমস্ত কেবিনেটে একসঙ্গে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হলে যেভাবে আগুন বের হয় ঠিক সেভাবেই বের হয়েছিল। আমি ডান হাত দিয়ে মুখটা রক্ষা করার চেষ্টা করি তাই ডান হাতটা বেশি পুড়ে গেছে এবং ঘুরে যাওয়ার কারণে পেছনের প্রায় সব চুলেই আগুন ধরে গিয়েছিল। নিজেকে কোনোভবে রক্ষা করি।

আগের দিনই আমার মনে হয়েছিল যে গ্যাস প্রায় শেষ হয়ে যাচ্ছিল। তবে এটা (চুলা) কাজ করায় আমি গুরুত্ব দিয়েছিলাম না। হয়তো শেষ গ্যাস তাই এভাবে বিস্ফোরণ হয়েছিল। আমি এটা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না আর এটা আমার পক্ষে ভোলাও সম্ভব নয়। কারণ মৃত্যুর অনেক কাছ থেকে ফিরে এসেছি। সামনে হাত দিয়ে ঘুরে না দাঁড়ালে পুরো মুখটাই পুড়ে যেতো। এখন আমার চুল কাটতে হবে। এটা খুব কষ্টদায়ক। তবে ঠিক হয়ে যাবে। যদি মুখে আগুন লেগে যেত কি হতো জানি না। তাই এসব ক্ষেত্রে সবসময় সবাই খুব সাবধান থাকবেন। আপনাদের সকলের দোয়া প্রার্থী।’

গত বছরের ২৮ জুলাই জাতীয় দলের ওপেনার লিটন দাসের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন সঞ্চিতা।

advertisement
Evall
advertisement