advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনার মধ্যেই ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলা

অনলাইন ডেস্ক
৩০ মার্চ ২০২০ ১৭:৪৯ | আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২০ ১৮:০০
ছবি : সংগৃহীত
advertisement

সারা বিশ্ব যখন করোনা মোকাবিলায় ব্যস্ত তখন দুর্ভিক্ষপীড়িত ইয়েমেনে বিমান হামলা চালিয়েছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। আজ সোমবার রাজধানী সানায় হুথি বিদ্রোহীদের লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স

গত শনিবার সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ ও দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর জিজানে তিন দফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়। ধারণা করা হচ্ছে হুথি বিদ্রোহীরাই ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছিল। ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলার প্রতিশোধ নিতেই পাল্টা হামলা চালিয়েছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। যুক্তরাষ্ট্রের প্যাট্রিয়ট মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম ব্যবহার করে জেজিন ও রিয়াদে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিহত করেছে সৌদি আরব।

ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসনের জবাব দিতে মাঝেমধ্যেই দেশটিকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে থাকে হুথি বিদ্রোহীরা। ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর দুটি বৃহৎ তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালানো হয়। এতে সৌদি আরবের তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমে আসে। হুথি বিদ্রোহীরা ওই হামলার দায় স্বীকার করে। যদিও ওই হামলায় ইরানকে দায়ী করে ওয়াশিংটন ও রিয়াদ। ওই ঘটনার জেরে সৌদি ও আমিরাতে আরও সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

২০১৫ সালে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদিকে উচ্ছেদ করে রাজধানী সানা দখলে নেয় হুথি বিদ্রোহীরা। পালিয়ে রিয়াদে আশ্রয় নেন সৌদি সমর্থিত হাদি। ২০১৫ সালের মার্চে হুথি’র বিরুদ্ধে মিত্রদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তায় ‘অপারেশন ডিসাইসিভ স্টর্ম’ নামে সামরিক অভিযান শুরু করে রিয়াদ। এ অভিযানে এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ১০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। ঘরছাড়া হয়েছে কয়েক লাখ মানুষ। দুর্ভিক্ষের মুখে রয়েছে পুরো ইয়েমেন।

advertisement
Evall
advertisement