advertisement
advertisement

ট্রি-কোয়ারেন্টিন

আমাদের সময় ডেস্ক
৩১ মার্চ ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩১ মার্চ ২০২০ ০০:৩৩
advertisement

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে অনেক মানুষকেই আইসোলেশন ও কোয়ারেন্টিনে থাকতে হচ্ছে। তবে দরিদ্র ও নিম্নআয়ের শ্রমজীবী মানুষদের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকার মতো অতিরিক্ত ঘর নেই। তবে এ সমস্যার অভিনব সমাধান বের করেছে সাত যুবক। গাছের মাচায় নিজের মতো করে কোয়ারেন্টিনে থাকছেন

তারা।

ঘটনাটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার। জীবিকার তাগিদে কয়েক মাস আগে চেন্নাই গিয়েছিলেন বলরামপুর ব্লকের গেঁড়ুযা অঞ্চলের ভাঙিডি গ্রামের ওই ৭ যুবক। সংক্রমণ ছড়াতে থাকায় তারা কাজ ছেড়ে ট্রেন ধরে বাড়ি ফিরে আসেন। কিন্তু এলাকার মাটির বাড়িতে অতিরিক্ত ঘর তো নেই। তাই ৭ জনের বাড়ির কাছে গাছের ডালে মাচা খাটিয়ে কোয়ারেন্টিন সেন্টার বানানো হয়েছে। অর্থাৎ হোম কোয়ারেন্টিনের বদলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ‘ট্রি কোয়ারেন্টিনে’ রয়েছেন তারা। এ উদ্যোগের প্রশংসাকরণেও দ্রুত তাদের সরকারি কোয়ারেন্টিনে থাকার সুব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

গ্রামে আসার আগে অবশ্য স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়েছিলেন ওই সাতজন। তবে কোনো সমস্যা ধরা পড়েনি। তার পরও সচেতনতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে তারা কোয়ারেন্টিনে থাকার সিদ্ধান্ত নেন। বাড়ির পাশে একটি বড় গাছের বিভিন্ন ডালে খাটিয়া চাপিয়ে মাচা বানিয়ে দেন স্থানীয়রা। মশারি খাটিয়ে ওখানেই সারাদিন থাকছেন ওই যুবকরা। দিনের বেলা গাছ থেকে নেমে নিচে রান্না করে খেয়ে আবার গাছে উঠে যাচ্ছেন। ওদের বাড়ির লোকজন চাল-ডাল গাছের তলায় রেখে দিয়ে আসছেন। নলকূপ থেকে পানি নিয়ে গ্রাম থেকে দূরে গোসল ও শৌচকর্ম সারছেন।

advertisement