advertisement
advertisement

বোয়ালমারীতে ২০ দোকান ও রাউজানে ২১ বসতঘর ভস্মীভূত

বোয়ালমারী, ধর্মপাশা ও রাউজান প্রতিনিধি
১ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১ এপ্রিল ২০২০ ০০:৩৪
advertisement

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার সাতৈর বাজারে এবং চট্টগ্রামের রাউজানের কাগতিয়া গ্রামের গুলজারপাড়ায় ভয়াবহ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। সাতৈর বাজারে ভয়াবহ আগুনে ২০টি দোকান ভস্মীভূত হয়ে গেছে। অন্যদিকে কাগতিয়া গ্রামের গুলজারপাড়ায় আগুনে সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে ২১ বসতঘর।

ফরিদপুরের অগ্নিকা-টির সূত্রপাত হয় বেলা ১১টায়। ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ২ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ক্ষতির পরিমাণ প্রায় দুই কোটি টাকা বলে জানিয়েছেন বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সৈয়দ সাইদুর রহমান সজল। এ ব্যাপারে তিনি জানান, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক মার্কেটের দোকানপাট বন্ধ ছিল। মার্কেটে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটের মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে তিনি দাবি করেন। পরে ফরহাদ শেখের গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান থেকে একাধিক গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটলে আগুন ভয়াবহ রূপ ধারণ করে আশপাশের দোকানগুলোয় ছড়িয়ে পড়ে। বোয়ালমারী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার জাফর শেখ বলেন, এখনই আগুনের সূত্রপাত বা ক্ষয়ক্ষতি নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি। তদন্ত শেষে আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।

অন্যদিকে চট্টগ্রামের রাউজানের কাগতিয়ার গুলজারপাড়ায় অগ্নিকা-ে কমপক্ষে কোটি টাকার সম্পদ ভস্মীভূত হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবি করেছেন। গতকাল ভোরে এই অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান গুলজারপাড়ার মো. ফোরকান নামের একজনের ঘরের শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। রাউজান ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা আশারাফুল ইসলাম আমাদের সময়কে জানান, খবর পেয়ে রাউজান ও হাটহজারী ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। তিনি আরও বলেন, পানি সংকটের কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সময় লেগেছে। এ কারণে ২১টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

advertisement