advertisement
advertisement

গরিব ও দুস্থদের পাশে থাকবে বিএনপি

ভিডিও কনফারেন্সে স্থায়ী কমিটির বৈঠক

নজরুল ইসলাম
১ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১ এপ্রিল ২০২০ ০০:৩৪
advertisement

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দেশে কর্মহীন গরিব ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। দলের নীতিনির্ধারকরা জানিয়েছেন, স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদে অসহায় মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হবে। গত সোমবার রাতে লন্ডনে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন। স্কাইপে সবাই একসঙ্গে যুক্ত হন। ভিডিও কনফারেন্সে নেতারা করোনায় করণীয় নিয়ে তাদের মতামত দেন।

দীর্ঘমেয়াদি কীভাবে অসহায় মানুষকে সহায়তা দেওয়া যায় তা নিয়ে ভাবতে বলা হয়। করোনার প্রভাবে দেশের অর্থনীতির যে ক্ষতি হবে, সেখান থেকে দেশকে কীভাবে টেনে তোলা সম্ভব, আর্থিক খাতে কীভাবে গতি ফিরিয়ে আনা যায়, তার একটি প্রতিবেদন তৈরি করতে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এদিকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে জেলা নেতাদের ইতোমধ্যে মৌখিক নির্দেশ দিয়েছে বিএনপি হাইকমান্ড। নিজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সাধ্যমতো অসহায় মানুষের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করতে বলা হয়েছে। ইতোমধ্যে ছাত্রদল,

স্বেচ্ছাসেবক দলসহ অঙ্গ সংগঠনগুলো রাজধানীসহ সারাদেশে এ কার্যক্রম শুরু করেছে।

জানা গেছে, বৈঠকে স্থায়ী কমিটির এক নেতা বলেন, মহানগর জেলা ও উপজেলা নেতাদের পাশাপাশি গত একাদশ সংসদ এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দল থেকে মনোনয়ন পাওয়া নেতাদের এ প্রক্রিয়ায় সরাসরি যুক্ত হওয়া উচিত। তারা এমন মতামতে সবাই একমত হন। বিগত নির্বাচনে যারা দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন, তাদের বিষয়টি অবহিত করতে বলা হয়। দ্রুত এলাকায় গিয়ে দুস্থদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের নির্দেশ দিতে বলা হয়।

জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, করোনা এখন মহামারী রূপ নিয়েছে। এর সঙ্গে রাজনীতির সম্পর্ক নেই। আমরা একটি দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে ঢাকাসহ সারাদেশে এ নিয়ে জনসচেতনতায় লিফলেট বিতরণ করেছি। আমাদের সব শাখাকে বলে দিয়েছি, তারা সজাগ থাকবে, সচেতনতা সৃষ্টি করবে। নিজস্ব নিরাপত্তা নিশ্চিত করে দেশের গরিব ও দুস্থ মানুষের পাশে থাকবে। সাধ্যমতো তাদের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করতে বলা হয়েছে।

বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু বলেন, দলের হাইকমান্ডের বার্তা দপ্তর থেকে বিভিন্ন জেলায় পৌঁছে দিয়েছি।

জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন বলেন, আমার জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে দুস্থ, অসহায়, দিনমজুরদের তালিকা করছি। তালিকা অনুযায়ী সাধ্যমতো চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শুরুও করেছি।

গত একাদশ সংসদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাওয়া নেতাদের নিজ এলাকায় থেকে গরিব ও দুস্থদের পাশে দাঁড়াতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অধিকাংশ নেতাই নিজ এলাকায় যাননি। এ নিয়ে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

বিএনপি হাইকমান্ডের নির্দেশনা পেয়ে কাজ শুরু করেছে অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারাও। ছাত্রদলের রাজশাহী, নড়াইল, গাজীপুর, জামালপুর, জয়পুরহাট, হবিগঞ্জসহ অধিকাংশ শাখার নেতারা ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলার বিভিন্ন সড়কে জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটানোসহ গরিব ও দুস্থ মানুষের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা-৩ আসনে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বরচন্দ্র রায়ের পক্ষে সাড়ে আটশ পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট নিপুণ রায়চৌধুরী

স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি শফিউল বারী বাবু বলেন, করোনা ভাইরাসের এই ভয়াবহ দুর্যোগে গরিব ও দুস্থদের পাশে থাকার জন্য দেশব্যাপী সংগঠনের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

advertisement