advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দরিদ্রদের ঘরে খাবার নিয়ে আ.লীগ নেতারা

দুঃসময়ে পাশে থাকার প্রত্যয়

১ এপ্রিল ২০২০ ০১:১৬
আপডেট: ১ এপ্রিল ২০২০ ০১:১৬
advertisement

চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ত্রাণ ও ভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ করছেন আওয়ামী লীগের বেশ কয়েক কেন্দ্রীয় নেতা ও সংসদ সদস্য। এর মধ্যে দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় অসহায় দিনমজুর, নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। প্রতিপ্যাকেটে ছিল চাল, ডাল, তেল, আলু, সাবানসহ ১০ কেজির নিত্যপণ্য। স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে ৫০০ পরিবারের জন্য ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতাদের হাতে মন্ত্রীর পক্ষে এসব খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন পৌর মেয়র শাহজাহান সিকদার। এ সময় এনএনকে ফাউন্ডেশনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন মাস্টার আবদুর রউফ, জসিম উদ্দিন তালুকদার, কাউছার নুর লিটন, কাউন্সিলর মোহাম্মদ সেলিম প্রমুখ।
মাদারীপুর জেলায় চার হাজার কর্মহীন দরিদ্র, অসহায় ও দিনমজুর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। গতকাল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এসব খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে ‘বাহাউদ্দিন নাছিম

ফাউন্ডেশন’। পরবর্তী সময়ে আরও দুই হাজার গরিব-দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছে সংগঠনটি। ব্যক্তিগত তহবিল ও দলের পক্ষে গতকাল বিকালে শরীয়তপুরের নড়িয়ায় ত্রাণ বিতরণ করেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম। উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হওয়ায় মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুরসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন ইউনিয়নের মানুষ এখন গৃহবন্দি। তাই গতকাল সেখানকার ৫০০ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজি। এর মধ্যে ছিল ১০ কেজি করে চাল, দুই কেজি ডাল, চার কেজি আলু, এক লিটার তেল, লবণ ও হাত ধোয়ার সাবানসহ কিছু ওষুধ।
প্রায়ই রাতের আঁধারে অসহায়-গরিবের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া, শ্রমিকদের সঙ্গে বসে খাওয়া, মাটির ঝুঁড়ি মাথায় নিয়ে বেড়িবাঁধ নির্মাণ বা সংস্কার করতে দেখা যায় সাতক্ষীরা-৪ আসনের সাংসদ এসএম জগলুল হায়দারকে। এবার করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষকে সহায়তা করছেন ঠিক আগের স্টাইলেই। খাদ্যসামগ্রীর ব্যাগ নিয়ে ছুটে চলছেন তিনি। মঙ্গলবার কালিগঞ্জ উপজেলার কুশলিয়া ইউনিয়নে শতাধিক অসহায় মানুষের বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছেন সেগুলো।
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলও তার নির্বাচনী এলাকায় মাস্ক, হ্যান্ডওয়াস ও অনন্য উপকরণ বিতরণ করেছেন। এর মধ্যে ছিল ২৭ হাজার পিস মাস্ক; ২৫ হাজার হাত ধোয়ার সাবান; ২৫ হাজার পিস হ্যান্ডওয়াস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও গ্লাভস; হ্যাক্সিসল ১ হাজার পিস। এ ছাড়াও করোনা ভাইরাস সচেতনতায় বিতরণ করছেন লিফলেট।
মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে যাওয়া মানুষকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহসম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবীর। তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে এসব পৌঁছে দেওয়া হয়। প্রতিটি প্যাকেটে ছিল ৫ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, দেড় কেজি ডাল, ১ লিটার ভোজ্যতেলসহ প্রয়োজনীয় মাস্ক ও হ্যান্ড সেনিটাইজার। এ ছাড়াও শ্রীনগর ও সিরাজদিখান উপজেলার ২৮টি ইউনিয়ন পরিষদসহ কয়েক এলাকায় জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটানোর ৩৫টি স্প্রে মেশিন বিতরণ করেন কবীর।

advertisement
Evall
advertisement