advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

২২২ বছর পর আবার হজ স্থগিতের শঙ্কা

সৌদি আরব সংবাদদাতা
৪ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৪ এপ্রিল ২০২০ ০০:২৩
advertisement

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে চলতি বছর পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে কিনা, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এর আগে ১৭৯৮ সালে হজ স্থগিত করা হয়েছিল। ২২২ বছর আগের সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি হওয়ার শঙ্কা দেখা যাচ্ছে এবারও।

সৌদি কর্মকর্তাদের বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতির কারণে এ বছর হজ বাতিল হতে পারে। ইসলামের ইতিহাসে অবশ্য হজ বাতিলের ঘটনা আগেও ঘটেছে। সর্বশেষ প্রায় ২২২ বছর আগে ১৭৯৮ সালে হজ বাতিল করা হয়েছিল।

এ বিষয়ে কিংস কলেজ লন্ডনের ওয়ার

স্টাডিজ বিভাগের প্রভাষক সিরাজ মাহের বলেন, ‘হজ বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে সৌদি কর্তৃপক্ষ মুসলিমদের মনস্তাত্ত্বিকভাবে প্রস্তুত করছে। তারা অতীত থেকে ঐতিহাসিক দৃষ্টান্ত তুলে ধরছে, যেখানে বিপর্যয় ও যুদ্ধসহ বিভিন্ন কারণে হজ স্থগিত করতে হয়েছিল। আমি মনে করি, এটি মানুষকে আশ্বস্ত করার বিস্তৃত প্রয়াসের একটি অংশ। যদি এ বছর হজ সত্যিই বাতিল হয় তবে সেটা কোনো নজিরবিহীন ঘটনা হবে না।’

পবিত্র শহর মক্কা ও মদিনায় ২৪ ঘণ্টার কারফিউ

এদিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে পবিত্র মক্কা ও মদিনায় ২৪ ঘণ্টার কারফিউ জারি করা হয়েছে। এর আগে শহরগুলোয় ১৫ ঘণ্টার কারফিউ জারি করা হয়েছিল এবং সবাইকে বাড়িতে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে করোনা ভাইরাসের কারণে মুসলিমদের হজবিষয়ক সব ধরনের চুক্তি থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে সৌদি আরব। এ বছর পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে কিনা তা জানতে মুসলিম সম্প্রদায়কে আরও অপেক্ষা করতে বলেছে দেশটি। সৌদি আরবের হজ মন্ত্রণায়ের মন্ত্রী মোহাম্মদ বাতেন গত মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এ আহ্বান জানান। মার্চের প্রথম দিকে করোনা ভাইরাসের কারণে ওমরাহ স্থগিত করেছিল সৌদি। সেই স্থাগিতাদেশ এখনো বহাল আছে।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হয়েছে সৌদি আরবে। দেশটিতে এ পর্যন্ত ১ হাজর ৮৮৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের।

advertisement
Evall
advertisement