advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনার ছুটিতে মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক

নিজস্ব প্রতিবেদক
৫ এপ্রিল ২০২০ ০২:৫৯ | আপডেট: ৫ এপ্রিল ২০২০ ০৯:৪৭
সংগৃহীত ছবি
advertisement

উহানের করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে চিনের বেইজিংসহ সব প্রদেশ থেকে চিকিৎসক এবং নার্স সেখানে পাঠানোর আগে তাদের মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক পড়েছিল। এ বিষয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, আক্রান্তদের চিকিৎসা দেওয়ার সময় যেন নিজেরা এ ভাইরাসে আক্রান্ত না হন; সে জন্য চিকিৎসক এবং নার্সরা চুল ছোট করে ফেলছেন। অনেকে ন্যাড়াও করেন।

চিনের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে ন্যাড়া হলেও বাংলাদেশের পরিস্থিতি ভিন্ন। করোনা সংক্রমণ রোধে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। একই
সঙ্গে অবস্থান করতে বলা হয় বাসায়। এই সুযোগে অনেককেই মাথা ন্যাড়া করতে দেখা গেছে। মাথার চুল ফেলে কেউ নীরবে বাসায় অবস্থান করছেন আবার অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করছেন। করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে এমন দৃশ্যে মানুষের মধ্যে কৌতূহলের সৃষ্টি হয়েছে।

শিশুদের পাতলা চুল ঘন হবে বলে বাবা-মায়েরা কিছু দিন পরপরই তাদের চুল ফেলে দেন। এটা বেশ বড় বয়স পর্যন্ত চলে কারও কারও ক্ষেত্রে। যদিও বারবার ন্যাড়া করলেই যে ভালো চুল গজাবে এ কথার কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। আবার প্রচলিত আছে, মাথা ন্যাড়া করলে চুল পড়া কমে যায়। কিন্তু মাথা ন্যাড়া করলে অনেকে বিরূপ মন্তব্য করেন; মশকরা করতে ন্যাড়া মাথায় হাত বুলিয়ে বিরক্ত করাও অনেকের শখ। এসব কারণে অনেকে চাইলেও ন্যাড়া করতে পারেন না। তাই করোনার ছুটিতে মাথা ন্যাড়া করছেন।

শিক্ষার্থী সিরাজুল ইসলাম ফেসবুকে ন্যাড়া মাথার ছবি পোস্ট করে বলেন, জন্মের পর দ্বিতীয়বার টাক হলাম। তিনি জানান, হোম কোয়ারেন্টিনে আছি, কাজ নেই। ঘরে বসে থেকে এ সুযোগে টাক হওয়া। সঙ্গে আরেকটি কারণ যুক্ত করে বলেন, সেলুন বন্ধ তাই টাক হয়ে গেলাম।

চাকরিজীবী তোফাজ্জল হোসেন ন্যাড়া হওয়ার পর ফেসবুকে নিজের পোস্ট দিয়ে লিখেন, কে এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে চাও?

গতকাল তিনি কয়েকজন ন্যাড়া মাথার ছবি দিয়ে এক স্ট্যাটাসে লিখেন, হোম কোয়ারেন্টিনে থেকে গত ২৯ তারিখ টাকলু হয়ে ওপেন চ্যালেঞ্জ পোস্ট দিয়েছিলাম টাকলু হওয়ার। আজকের দুপুর পর্যন্ত এই ১০ বন্ধু টাকলু হয়ে তাদের সুন্দর ছবি ইনবক্স করেছে। অভিনন্দন এবং স্বাগতম টু টাকলু গ্রুপ। #বাসায় #থাকুন #সুরক্ষিত #থাকুন।

এ ছাড়া করোনা ভাইরাসের কারণে ক্যাম্পাস বন্ধ এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের মাঝে হঠাৎ করে মাথা ন্যাড়ার হিড়িক পড়েছে। আতঙ্কের মধ্যে এমন দৃশ্য যেমন বিনোদন দিচ্ছে তেমনি কৌতূহলও জাগাচ্ছে শিক্ষার্থীদের মাঝে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিদিন ঢাবি শিক্ষার্থীদের কাউকে না কাউকে মাথা ন্যাড়া করে ফেসবুকে ছবি আপলোড করতে দেখা যাচ্ছে। এরই মধ্যে যারা মাথা ন্যাড়া করেছে তাদের নিয়ে গঠন হয়েছে বাংলাদেশ টাকলু পরিষদ (বাটাপ)। তারা সেøাগান বানিয়েছি- ‘টাকলু হোন, বাসায় থাকুন। নিরাপদে থাকুন।’

ব্যবসায়ী রাজু শিকদার পরিবারে চারজন মাথা ন্যাড়া করেছেন। তিনি জানান, চুল বড় হয়ে যাওয়ায় গরমে মাথা চুলকাচ্ছিল। এদিকে সেলুন সব বন্ধ। চুল ছাঁটানোর সুযোগ নেই। বাসায়ই যেহেতু থাকছি তাই ছোট দুই মেয়ে ও ভাইসহ ন্যাড়া হয়ে গেলাম।

advertisement
Evall
advertisement