advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ছুটি বাড়ল ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
৬ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৬ এপ্রিল ২০২০ ০০:৫১
advertisement

দেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকায় ‘লকডাউনের’ মেয়াদ বাড়ল আরও তিন দিন। এর আগে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সব অফিস-আদালত বন্ধ রাখার যে ঘোষণা সরকার দিয়েছিল, তা ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে বলে জনপ্রশাসন

সচিব শেখ ইউসুফ হারুন জানিয়েছেন। গতকাল রবিবার তিনি বলেন, আগে ১১ তারিখ পর্যন্ত ছুটি ছিল। নতুন করে ১২ ও ১৩ এপ্রিল সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ১৪ এপ্রিল আগে থেকেই নির্বাহী আদেশে বাংলা নববর্ষের ছুটি ছিল, সেই ছুটিও এর সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত হবে। অর্থাৎÑ নতুন করে ‘ছুটি’ বাড়ায় এখন তা বলবৎ থাকবে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত।

দেশে করোনা ভাইরাসের মহামারী মোকাবিলা এবং এর ব্যাপক বিস্তাররোধে এই ছুটি বাড়ানো হয়েছে জানিয়ে আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। সেখানে বলা হয়েছেÑ জরুরি পরিসেবার (বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট ইত্যাদি) ক্ষেত্রে এ ব্যবস্থা প্রযোজ্য হবে না।

জরুরি প্রয়োজনে অফিস খোলা রাখা যাবে জানিয়ে ছুটির আদেশে বলা হয়েছেÑ প্রয়োজনে ঔষধশিল্প, উৎপাদন ও রপ্তানিমুখী শিল্পকারখানা চালু রাখতে পারবে কর্তৃপক্ষ।

মানুষের জীবন-জীবিকার স্বার্থে রিকশা-ভ্যানসহ যানবাহন, রেল, বাস সার্ভিস পর্যায়ক্রমে চালু করা হবে। জনগণের প্রয়োজন বিবেচনায় ছুটিকালীন বাংলাদেশ ব্যাংক সীমিত আকারে ব্যাংকিং ব্যবস্থা চালু রাখার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবে।

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে সরকার প্রথম দফায় ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সব অফিস-আদালত বন্ধ রেখে সারাদেশে সব ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। সেই সঙ্গে সবাইকে যার যার বাড়িতে থাকার নির্দেশ দেওয়ায় বিশ্বের আরও অনেক দেশের মতো বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষও ঘরবন্দি দশার মধ্যে পড়ে, যাকে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে বর্ণনা করা হচ্ছে ‘লকডাউন’ হিসেবে। সরকারি ভাষায় সেই ‘ছুটির’ মেয়াদ এর পর বাড়িয়ে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত করা হয়। রবিবার নতুন করে তৃতীয় দফায় আরও তিন দিন তা বাড়ানো হলো।

advertisement