advertisement
advertisement

ঝিনাইগাতীতে সড়কে ব্যারিকেড

ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি
৭ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৭ এপ্রিল ২০২০ ০০:৩৩
advertisement

শেরপুরে প্রথমবারের মতো করোনা আক্রান্ত দুই রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ঝিনাইগাতী উপজেলায় করোনার সংক্রমণ রোধে সামাজিক বিচ্ছিন্নতা নিশ্চিত ও জনগণের অপ্রয়োজনীয় চলাচল নিরুৎসাহিত করতে উপজেলার প্রবেশদ্বারের সড়কগুলোয় অস্থায়ী বাঁশের ব্যারিকেড (প্রতিবন্ধক) দেওয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল থেকে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের যৌথ উদ্যোগে উপজেলার পাঁচটি স্থানে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় এ ব্যারিকেড দেওয়া হয়। করোনা সংক্রমণ রোধে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে জনগণ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, করোনা সংক্রমণ রোধে ঝিনাইগাতী-শেরপুর সড়কের কালিবাড়ি, নালিতাবাড়ী-ঝিনাইগাতী সড়কের টেংরাখালী, ঝিনাইগাতী-মধুটিলা ইকোপার্ক সড়কের হলদীগ্রাম, শ্রীবরদীÑঝিনাইগাতী সড়কের বটতলা, ঝিনাইগাতী-শ্রীবরদী সড়কের বালিজুড়ি এলাকায় বাঁশের অস্থায়ী ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। ব্যারিকেডগুলোয় পুলিশ ও গ্রামপুলিশের সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন।

জরুরি যানবাহন ছাড়া অন্য কোনো যানবাহন প্রবেশ বা বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। এ ছাড়া উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে ওষুধ ও কাঁচামাল ছাড়া সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সড়কে মোটরসাইকেল ছাড়া অন্য কোনো গণপরিবহন চলাচল দেখা যায়নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ বলেন, কিছু মানুষ অতি উৎসাহী হয়ে পথে বের হয়ে আসছেন। তাদের রুখতে কঠোর অবস্থানে মাঠে আছি। জনগণের অপ্রয়োজনীয় চলাচলকে নিরুৎসাহিত করতে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশের উদ্যোগে ব্যারিকেড (প্রতিবন্ধক) দেওয়া হয়েছে। কর্মহীন শ্রমজীবী অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

advertisement