advertisement
advertisement

১০ টাকার চালে বেশি দাম নেওয়ার অভিযোগ

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি
৯ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৮ এপ্রিল ২০২০ ২১:৪০
advertisement

শেরপুরের নালিতাবাড়ীর পোড়াগাঁও ইউনিয়নের দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে ডিলার রিপন চিরানের বিরুদ্ধে। ৩০ কেজি চালের বিপরীতে ৩শ টাকার স্থলে কার্ড তৈরির খরচের কথা বলে আরও জনপ্রতি ১শ টাকা করে বাড়িয়ে ৪শ টাকা করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়রা জানান, ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বন্দনা চাম্বুগং তার স্বামী রিপন চিরানের নামে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির ডিলারশিপ নেন। তার আওতায় ওই এলাকার ৬শ কার্ডধারী রয়েছেন। যাদের মধ্যে সরকারের নিয়ম অনুযায়ী কেজিপ্রতি ১০ টাকা করে নেওয়ার কথা। কিন্তু গত ২৬ মার্চ এর প্রথম দফায় চাল বিক্রিকালে ১০ টাকা কেজি করে ৩০ কেজি চালের বিপরীতে ৩শ টাকার স্থলে ৪শ করে টাকা আদায় করেন। তবে কেউ কেউ ওই সময় ৩শ টাকা করে দিয়ে একশ টাকা বাকিও রাখেন।

দ্বিতীয় দফায় মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) চাল বিক্রিকালে বাকি রাখা কার্ডধারী ওইসব চাল ক্রেতার কাছ থেকে ৩০ কেজির বিপরীতে ৩শ টাকার স্থলে ৪শ টাকা আদায় শুরু করেন। এ সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য হযরত আলীসহ স্থানীয় নেতারা এর প্রতিবাদ করলে একপর্যায়ে ৩শ করে নেওয়া হয়। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন-অস্বচ্ছল মানুষদের জিম্মি করে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সচেতন এলাকাবাসী।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বিল্লাল হোসেন জানান, বন্দনা চাম্বুগং ১০ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি চালের জন্য ৩শ টাকার স্থলে অনেকের কাছ থেকে ৪শ টাকা করে নিয়েছে বলে অনেকেই বলেছেন। এটি খুবই দুঃখজনক।

ডিলার রিপন চিরানের স্ত্রী পোড়াগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আদিবাসী নেত্রী বন্দনা চাম্বুগং অভিযোগের বিষয়ে বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন, যা সঠিক নয়।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুর রহমান বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

advertisement