advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

২ শতাংশে ২ হাজার কোটি টাকা ঋণ চান পণ্য পরিবহন মালিকরা

চট্টগ্রাম ব্যুরো
৯ এপ্রিল ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৮ এপ্রিল ২০২০ ২২:২৬
advertisement

করোনা পরিস্থিতিতে জাতীয় সংকট তৈরি হওয়ায় দেশের আর্থিক ক্ষতি পোষাতে ২ শতাংশ হারে দুহাজার কোটি টাকা ঋণ চান পণ্যবাহী পরিবহন মালিকরা। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। পণ্য পরিবহন ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন আন্তঃজিলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ভভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী জাফর আহম্মদ গতকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী বরাবর চিঠি পাঠান।

জানা গেছে, করোনা পরিস্থিতির কারণে আমদানি রপ্তানির সঙ্গে সঙ্গে শিল্প প্রতিষ্ঠান ও অধিকাংশ গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ফলে পণ্য পরিবহন ব্যবসায়ীরা বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। আমদানি ও রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ এবং আমদানি ও রপ্তানি পণ্যের নতুন কোনো ঋণপত্র খোলা হচ্ছে না। তাই আগামীতে পরিবহন ব্যবসায়ীরা ক্ষতির আশঙ্কা করছেন।

এদিকে পরিবহন বন্ধ থাকায় আয়ের পথ বন্ধ। অন্যদিকে যন্ত্রাংশের দাম বেড়েছে। ফলে পণ্য পরিবহন মালিকরা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। এ কারণে গাড়ির মাসিক কিস্তি এবং চালক ও সহকারীদের বেতন দিতে পারছেন না। আবার গাড়ি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান নিটল টাটা, ইফাদ অটোস এবং র‌্যাংগস গাড়ির কিস্তি দিতে জোর তাগিদ দিচ্ছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী জাফর আহম্মদ আমাদের সময়কে বলেন, পণ্য পরিবহন মালিকদের অবস্থা ও আর্থিক ক্ষতি বিবেচনা করে ঋণ পরিশোধের জন্য গার্মেন্টস শিল্পের মতো

পণ্য পরিবহনে নিয়োজিত মালিকদের ২ শতাংশ হারে দুহাজার কোটি টাকা ঋণ চেয়েছি। আগামী ৩ বছরের মধ্যে পরিশোধ করবো। ঋণ মঞ্জুর হওয়া পর্যন্ত পণ্য পরিবহন সেবায় নিয়োজিত পরিবহনগুলোর মাসিক কিস্তি আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত ও উচ্চ সুদের হার হ্রাসের অনুরোধ জানিয়েছি। এ বিষয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা কামনা করছি।

advertisement